MD.KHALED MOSHARRAF SHOHEL
প্রকাশ ১৫/০৭/২০২২ ০৪:১৪পি এম

বেতাগীতে আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থীর বিরুদ্ধে আচরণবিধি ভঙ্গের অভিযোগ

বেতাগীতে আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থীর বিরুদ্ধে আচরণবিধি ভঙ্গের অভিযোগ
ad image
জেলা প্রতিনিধি,বরগুনা।।
বরগুনার বেতাগী উপজেলার কাজিরাবাদ ইউপি চেয়ারম্যান পদের উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী মো. সালাউদ্দীন মাহমুদ সুমনের বিরুদ্ধে আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ পাওয়া গেছে।
ইউপি নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘন করে গতকাল সোমবার বেলা সাড়ে ১১টায় তিনি প্রায় শতাধিক মোটরসাইকেল নিয়ে কাজিরাবার ইউনিয়নের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করেন। এ সময় তাঁর সমর্থকেরা নির্বাচনী শ্লোগানও দেন।
নির্বাচন কমিশনের ইউপি নির্বাচন আচরণবিধির ১৩/ক ধারা অনুযায়ী জানা যায়, নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা থেকে নির্বাচন শেষ না হওয়া পর্যন্ত প্রার্থীর পক্ষ থেকে কোনো প্রকার মোটরসাইকেল শোভাযাত্রা সুস্পষ্ট আচরণবিধি লঙ্ঘন। অথচ বেতাগীতে তফসিল ঘোষণা অনুযায়ী আগামী ১৫ জুন ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। আগামী ১৯ মে মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই শেষে প্রতীক বরাদ্দ হবে আগামী ২৭ মে। মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই বা প্রতীক বরাদ্দের আগে আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থীর এমন কান্ড সবাইকে অবাক করেছে।
এ ব্যাপারে স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. কামাল হোসেন অভিযোগ করে বলেন, ‘ক্ষমতাসীন দলের প্রার্থী হওয়ায় সালাউদ্দীন মাহমুদ সুমন প্রতীক বরাদ্দের আগেই আচরণবিধি লঙ্ঘন করে নির্বাচনী প্রচারণা চালাচ্ছেন। নির্বাচনী কার্যক্রমকে ব্যাহত এবং প্রতিপক্ষ প্রার্থী ও ভোটারদের চাপে রাখতে তিনি এসব কর্মকান্ড করছেন। বিষয়টি এরই মধ্যে আমি রিটার্নিং অফিসারকে জানিয়েছি।’
তবে আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী সালাউদ্দীন মাহমুদ সুমন মোটরসাইকেল শোভাযাত্রার কথা স্বীকার করে বলেন, ‘আমি মনোনয়ন নিয়ে আসায় আমার কর্মীরা ভদ্রতার সঙ্গে শৃঙ্খলভাবে মোটরসাইকেল শোভাযাত্রা করেছে। তবে আমরা প্রতীক নিয়ে কোনো ভোট চাইনি।’
উপজেলা নির্বাচন কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, গত ৯ জানুয়ারি কাজিরাবাদ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো. মোশারফ হোসেন বার্ধক্যজনিত কারণে মারা গেলে কাজিরাবাদ ইউপিতে চেয়ারম্যান পদটি শূন্য ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন। আগামী ১৫ জুন ওই ইউপিতে উপনির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। আজ মঙ্গলবার চেয়ারম্যান পদে মনোনয়নপত্র কেনার শেষ দিন।
ওই ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনী রিটার্নিং কর্মকর্তা কাজী শহিদুল ইসলাম বলেন, প্রতীক বরাদ্দের আগে প্রচার প্রচারণার কোনো সুযোগ নেই। কোনো প্রার্থীর পক্ষে মোটরসাইকেলের বহর নিয়ে প্রচার-প্রচারণা অবশ্যই আচরণবিধির লঙ্ঘন। অভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
এ ব্যাপারে বেতাগী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. সুহৃদ সালেহীন জানান, ঘটনাটি তিনি শুনেছেন। এ ব্যাপারে রিটার্নিং অফিসারকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে বলা হয়েছে বলে জানান তিনি।

শেয়ার করুন

ad image

সম্পর্কিত সংবাদ