Md. Abu Raihan
প্রকাশ ১১/০৩/২০২২ ০৭:৩৭পি এম

ফেসবুকের মন্তব্য নিয়ে জয়পুরহাটে বিএনপির দু’গ্রুপের সংঘর্ষে ৮ নেতাকর্মী আহত

ফেসবুকের মন্তব্য নিয়ে জয়পুরহাটে বিএনপির দু’গ্রুপের সংঘর্ষে ৮ নেতাকর্মী আহত
ad image
সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে দেওয়া একটি পোস্টে মন্তব্য করাকে কেন্দ্র করে জয়পুরহাটে বিএনপির দু’গ্রুপের সংঘর্ষের ঘটনায় ছাত্রদল ও যুবদলের ৮ জন নেতাকর্মী আহত হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১০মার্চ) রাত সাড়ে ৮টার দিকে শহরের জেলা বিএনপির কার্যালয়ের পাশে রেল লাইনের উপরে এ ঘটনা ঘটে।

আহতরা হলেন, জেলা যুবদলের যুগ্ম আহবায়ক রেজভী (৩০), থানা ছাত্রদলের সদস্য মেহেদী হাসান (৩৫), জেলা ছাত্রদলের সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আমিনুর (২৮), জেলা বিএনপির সাবেক আপ্যায়ন বিষয়ক সম্পাদক আজিজুল (৪০), শহর শাখার যুগ্ম আহবায়ক শাহরিয়ার (৪১), জেলা ছাত্রদলের সহ-সভাপতি ও যুবদলের সদস্য রাজিব (৩০), ছাত্রদলের কলেজ শাখার যুগ্ম সম্পাদক সাগর (২১) ও আহাদ আলী (২১) বলে জানা গেছে।
 
দলীয় সুত্রে জানা যায়, রাজনৈতিক কন্দোল জের ও সম্প্রতি ফেসবুকে ছবি ছাড়াকে কেন্দ্র করে বৃহস্পতিবার রাতে সাড়ে আটটার দিকে শহরের জেলা বিএনপির কার্যালয়ের পাশে রেল লাইনের উপরে ছাত্রদল-যুবদলের দু’গ্রুপের মধ্যে কথা কাটাকাটির একপর্যায়ে ধারালো অস্ত্র, লাঠি, পাথর দিয়ে এলোপাথারি মারধর করে। এ সময় বিএনপি-যুবদল-ছাত্রদলের আট নেতাকর্মী আহত হয়। আহতদের স্থানীয়রা উদ্ধার করে জয়পুরহাট আধুনিক জেলা হাসপাতালে ভর্তি করেন। এদের মধ্যে রেজভী, মেহেদী ও আমিনুরের অবস্থার অবনতি হওয়ায় বগুড়ার শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।

জয়পুরহাট আধুনিক জেলা হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. সরদার রাশেদ মোবারক বলেন, বিএনপির দু’গ্রুপের সংঘর্ষে হাসপাতালে আটজন ভর্তি হয়। এদের মধ্যে তিনজনকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বগুড়াতে রেফার্ড করা হয়েছে। এ ব্যাপারে জেলা বিএনপির আহবায়ক অধ্যক্ষ শামছুল হক বলেন, দলের পদ-পদবি না পেয়ে উচ্ছৃঙ্খল একটি গ্রুপ বিএনপি, যুবদল ও ছাত্রদলের আট নেতাকর্মীর উপরে হামলা করে গুরুতর আহত করে। তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। জয়পুরহাট সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আলমগীর জাহান জানান, বিএনপির দলীয় কার্যালয়ের তাদের নিজ দলের দুগ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় থানায় কোন পক্ষই অভিযোগ করেনি। 

শেয়ার করুন

ad image

সম্পর্কিত সংবাদ