Nobir Hossen - (Gazipur)
প্রকাশ ০৮/০৩/২০২২ ১০:৫৩এ এম

২০২২ সালে ফেসবুকের অ্যালগরিদম কীভাবে কাজ করে?

২০২২ সালে ফেসবুকের অ্যালগরিদম কীভাবে কাজ করে?
ad image
২০২২ সালে ফেসবুকের অ্যালগরিদম কীভাবে কাজ করে এবং ফেসবুকের অ্যাগরিদম বুঝে আপনার ব্যাবসা কীভাবে পরিচালনা করবেন ফেসবুকের মাধ্যমে?

আপনি কী জানেন ফেসবুকের অ্যালগরিদম কীভাবে কাজ করে?
আপনি কী জানা আছে ফেসবুক এ পর্যন্ত কত বার অ্যালগরিদম আপডেট আনা হয়েছে?
ফেসবুক কীভাবে আমাদের কে ফেসবুকের নিউজ ফিডে বসিয়ে রাখে- এটাও কী জানতে চান?
একটি পোস্ট কেন রিচ ডাউন হয়ে যায় শুধু মাএ ফেসবুকের অ্যাগরিদম না বুঝার কারণে এটার উওরও পেয়ে যাবেন এখানে?
এ পর্যন্ত ফেসবুকের সকল আপডেট নিয়ে আলোচনা করা হবে?
২০২২ সালে ফেসবুক কীভাবে কাজ করে এটাও আলোচনা করা হয়েছে এখানে?
আপনি কী জানেন ফেসবুক অ্যাগরিদমের মিল রেখে সাথে আপনার পোস্ট কীভাবে রিচ করাতে হয়?
আপনি পড়তে থাকুন আমরা এ সকল কিছু ব্যাখা করে দিচ্ছি?


২০২১ সাল পর্যন্ত ফেসবুকের পোস্টের মাএা অনেক বেড়ে গেছে এটা বলার অপেক্ষা রাখে না। ফেসবুকের অ্যালগরিদম কী এবং কীভাবে কাজ করে? ফেসবুক এর পরিচলনা কৌশল এবং ফেসবুকের এআই,ফেসবুকের নিজে মস্তিস্ক ব্যাবহার করে ভিজিটর বা গ্রাহকের পোস্ট,মনের ভাব,ব্যাবসা পরিচলনা যা কিছু শেয়ার করে থাকে। সেগুলো ফেসবুকের নিজে কৃত্রিম বুদ্ধিমততা ব্যাবহার করে মানুষকে তাদের কাছে ধরে রাখে! ফেসবুক অ্যালগরিদম এআই সিদ্ধান্ত নিয়ে থাকে একটি পোস্ট করার পর কীভাবে তাদের ব্যাবহার কারিক নিকট পৌছাবো। ফেসবুক আমাদের মনে করিয়ে দেতে চায় যে ফেসবুকের নিজের কোন অ্যালগরিদম নাই। হ্যা সত্যি, ফেসবুক আমাদের সাথে এমনটাই করে থাকে! ফেসবুকের অ্যালগরিদম মেশিন লার্নিং মডে এবং একাধিক Ranking একাদিক স্তর মিলে নির্ধারণ করে পোস্ট গুলো কী দীর্ঘ মেয়াদি হবে সে সাথে কীভাবে পোস্ট গুলো অর্থবহ হবে।

ফেসবুক অ্যালগরিদম মূলত আমাদের করা পোস্ট গুলো কলানুক্রমে অনুসারে উপস্থাপন করা থেকে বিরত থেকে, ফেসবুকের অ্যালগরিদম আমাদের করা পোস্ট গুলো সবার প্রথমে মূল্যয়ন করে, প্রতিটি পোস্ট গুলোকে সবার প্রথমে স্কোর করে তার প্রতি ব্যাবহার কারির আগ্রহ এবং প্রয়োজন অনুযায়ী একে একে সাজিয়ে থাকে। সারা বিশ্বে ২.৮৬ বিলিয়ন ফেসবুক ইউজার আছে!

ফেসবুক অ্যাগরিদম সিদ্ধান্ত নেয় কীভাবে পোস্ট কী দেখাবে এবং কী দেখাবে না।অ্যালগরিদম লক্ষ হলো ইউজারকে নিউজ ফিডে ধরে রাখা। যেন তারা আরো বিজ্ঞাপন দেখাতে পারে। ফেসবুক অ্যালগরিদম ইতিহাস জেনে নেওয়া যাক? নিচের ছবিটিতে ২০০৪ থেকে ২১ সাল পর্যন্ত পরিবর্তন ক্রমনুসারে দেখানো

ফেসবুকের অ্যাগরিদম কখনোই একরকম থাকে না। এটি ক্রমানুসারে পরিবর্তন করতে থাকে। অ্যালগরিদম হাজার ডেটা পয়েন্ট আকার করে রাখে। সাধারণত ফেসবুকের কারীরা কী দেখতে চায় কিসের প্রতি আগ্রহ তার উপর নির্ভর করে ফেসবুকের ডেটা পয়েন্ট (রেংকিং সংকেত) যুক্ত করা হয়।


২০০৪-২০০৯

আমরা জানি ২০০৪ সালে ফেসবুকের জন্ম হয়েছিল। ফেসবুকে অকল্পনীয় একাউন্ট গুলো নিশ্চিত করে যেঃ ফেসবুকের নিজফিড ২০০৬ সালে এড করে। লাইক বাটনটি ২০০৭ সালে এড করা হয়। ফেসবুক একটি বাছাই আদেশ প্রিমিয়ার করপ সর্বধিক লাইক পাওয়া পোস্ট গুলো নিউজফিডের সবার উপরে দেখাবে। এটি তখনকার সময়ে ফেসবুক অ্যালগরিদম ব্যাপক পরিবর্তন ছিল!

২০১৫

২০১৫ সালের দিকে ফেসবুক বেশ কয়েক বছর এগিয়ে যায়। ব্যাবহার কারিদের আচরণের অভিজ্ঞতা হয়ে উঠেছিল সেগুলো অত্যাদিক প্রচার মূলক সামগ্রিক পোস্ট রেংক করা শুরু করে। বিজ্ঞাপন জাতীয় পোস্ট উদাহরণ।

২০১৫ সালে ফেসবুক সরাসরি তাদের ইউজারদে অ্যালগরিদম নাজ করার ক্ষমতা দিয়েছে। এটি মূলত ব্যাবহার কারিদের ইঈিদ দেয় যে তারা তাদের ফিডে একটি পৃষ্ঠার পোস্ট কে বেশি অগ্রাধিকার দিতে চায়।

২০১৬

২০১৬ এ বছরই ফেসবুক তাদের শুধুমাত্র লাইক বাটনটি থেকে ( গ্রহকদের আবেগ অনুভুতি বোঝার জন্য) রিদয়,রাগান্বিত প্রতিক্রিয়া বাটনটি যোগ করে। এর ফলে ইউজার মানসিক প্রতিক্রিয়াকে গুরুত্ব দিতে শুরু করে। আর ভিডিও ক্ষেএ ফেসবুক তাদের অ্যালগরিদম আপডেট এনে গুরুত্ব দেওয়া শুরু করে। যেমন একটি ভিডিও কী পরিমান দেখন কতটুকু সময় ধরে ভিডিওতে থাকলে সেই অনুযায়ী ভিডিও গুলোকেও রেংকিং দেওয়া শুরু করে।

২০১৮

২০১৮ সালের শুরুর দিকে মার্ক জাকারবার্গ ঘোষণা দেন যে ফেসবুকে তাদের নিজের অ্যাগরিদম অনুযায়ী "ব্যাবহারকারির পোস্টের কথা কপোন এবং অর্থ পূর্ণ মিথস্ক্রিয়া সৃষ্টি " বেশি অগ্রাধিকার দেওয়া হবে।এ ই পরিবর্তন টি মূলত মানুষের ফেসবুকে ব্যায় করা মান বাড়ানো জন্য এবং প্লাটফর্ম টি কীভাবে তার ইউজার এর দায়িত্ব নেওয়ার উদ্দেশ্য করা হয়েছিল। আবার এটি একজন ফেসবুক ব্যাবহার কারিক মানসিক সাস্থ্য এবং সামগ্রিক সুস্থতাকে প্রভাবিত করে।

বন্ধু বান্ধব,পরিবার কাছে মানুষ জনকেউ ফেসবুকের গ্রুপ পোস্ট গুলোকেও রেংক অনুসারে সাজানো হয়। এই আপডেট পর।

২০১৯

ফেসবুকের অ্যালগরিদম ২০১৯ সালে বড় ধরনের আপডেট আনা হয়। যেটি ছিল মূলত ভিডিও " উচ্চ মানের ভিডিও এবং অরিজিনাল কনটেন্ট" কে বেশি অগ্রাধিকার দেওয়া হয় যা দর্শকদের ১ মিনিট সময় ধরে রাখতে ধরে রাখতে সক্ষম হয়। যেটি অনেক ৩ মিনিট বেশি সময় ধরে ইউজার এর মনোযোগ ধরে রাখতে সক্ষম হয়।

এছাড়াও ফেসবুক "কাছের বন্ধু বান্ধব " থেকে পোস্ট এবং তাদের শেয়ার করা বিষয় বস্তর বামপ আপ করা শুরু করে। এটি করা হয় মূলত যাদের সাথে লোকেরা বেশি ব্যাস্ত সময় কাটায় ফেসবুকে এগুলো কেন্ত্র করে।

আবার ফেসবুক এর ফলে অনেক সমালোচনা মুখোমুখি হন। কারণ এই আপডেট ফলে নাকি বিপজ্জনক ভুল গুজব ছড়ানো পিছনে অ্যালগরিদম ব্যাপক ভুমিকা রয়েছে। ২০১৮ সালের পরিবর্তন রাজনৈতিক মেরুকরণ এবং ভুল তথ্য সিমারেখা বিষয় গুলো প্রচার করছে। সেই সাথে ফেসবুক ডেটা সংগ্রহ গুলো পছন্দ করেনি।

২০২০

এই আপডেট মাধ্যমে ফেসবুক ঘোষনা করে যে এর মাধ্যমে ফেসবুক ব্যাবহার কারিরা আরও সহজে তাদের অ্যালগরিদম বুঝতে পারবে। এবং অ্যাগরিদমকে ভালে এমটিভিটি দেখানোর জন্য এবং তাদের ডেটা নিয়ন্ত্রণ নিয়ে যাচ্ছে। লোকেরা তাদের গোপনীয়তা সম্পর্কে ক্রমবর্তনান উদিগন হয়ে উঠেছিল। আবার এদিকে ফেক নিউজ ফ্রন্ট ২০২০ সালে ঘোষণা করে যে তাদের অ্যালগরিদম এখন সংবাদ নিবন্ধন গুলোর বিশ্বাস গুলোর এবং গুনকে মূল্যয়ন করবে। যেন ভুল তথ্যের বিপরীতে সঠিক তথা প্রচারিত হয়।

২০২১ সালে ফেসবুকের অ্যালগরিদম কীভাবে কাজ করে? ২০২১ সালের জানুয়ারি মাসে ফেসবুক তাদের অ্যালগরিদম নিয়ে একটি নতুন বিবরনি প্রকাশ করছে। আপনি এখান থেকে ফেসবুক প্রযুক্তি নিয়ে ব্যাখা পড়তে পারেন। এখন আসা যাক কীভাবে ফেসবুক অ্যালগরিদম কীভাবে কাজ করে সম্পূর্ণ ব্যাখ্যা?

১/ সবার প্রথম ফেসবুক তার ব্যাবহারকারীর একটিভিটি উপলব্ধি করে পোস্ট নেয় (ইনভেনরি)। এবং এটি মূলত সেই পোস্ট গুলোর পূর্ব নির্ধারিত রেংক অনুযায়ী স্কোর করে। সাধারণত এ ক্ষেএে পোস্টর ধরন মান নতুনত্ব ইত্যাদি বিষয়ে বিবেচনা করা হয়।

২/ পরিবর্তি ধাপে ফেসবুক ব্যাবহার কারির অতিথ আচরণের উপর ভিত্তি করে এমন পোস্ট গুলো বাতিল করে যে পোস্ট গুলো কোন ভাবেই একজন ব্যাবহার কারি পছন্দ করবে না। এটু মূলত এমন বস্তকে বিবেচনা করে যা সাধদরণত ব্যাবহার কারি কোনভাবে দেখতে চাননা। (যেমন ক্লিকবেট,ভুল তথ্য,এজাতীয় সকল কিছু যা তারা অপছন্দ করে)

৩/ তারপর,এটি ব্যাক্তিগতকৃত উপায়ে স্কোর করার জন্য বাকি পোস্ট গুলোর উপর আরও একটি শক্তিশালি নিউরন নেটওয়ার্ক চালায়। উদাহরণ সরুপ মোনালিসা তার ফেসবুক গ্রুপ থেকে ফানি ভিডিও দেখার সম্ভবনা ২০%,কিন্তু তার বোনের নতুন বিড়াল ছানার ফটোতে ভালোবাসা পতিক্রিয়া রয়েছে ৯৫%। এরকমন ক্রম অনুসারে সেগুলোকে নিউজফিডে স্থান দেওয়া হয়।

৪/ শেষ পর্যায় এটি ব্যাবহার কারির পোস্টের ধরন এবং রেংক অনুসারে ব্যাবহার কারির নিউজফিডে এমন ভাবে সাজার যেন স্ক্রোল করার জন্য আকর্ষনীয় পোস্ট থাকে। পরিশেষে বলা যায় কোন পোস্ট গুলো নিউজফিডে সবার উপরে থাকবে তা নির্ধারন হয় আমরা কার ফিডে সাথে কথা বলছি সেটির উপর।

ফেসবুকের ভাষ্য অনুযায়ী একটি পোস্ট হাজার হাজার রেংকিং সংকেত ব্যাবহার করে। একজন ব্যাবহার কারির ইন্টারনেট গতি থেকে শুরু করে সকল কিছু বিবেচনা করা হয়। সম্পর্ক: কোন ব্যক্তি, ব্যবসা, সংবাদের উৎস বা জনসাধারণের কাছ থেকে পোস্ট করা হয় যার সাথে ব্যবহারকারী প্রায়ই জড়িত থাকে? (যেমন, বার্তা, ট্যাগ, এর সাথে জড়িত, অনুসরণ করে, ইত্যাদি) বিষয়বস্তুর প্রকার: পোস্টে কোন ধরনের মিডিয়া রয়েছে এবং ব্যবহারকারী কোন ধরনের মিডিয়ার সাথে সবচেয়ে বেশি ইন্টারঅ্যাক্ট করেন? (যেমন, ভিডিও, ফটো, লিঙ্ক, ইত্যাদি) জনপ্রিয়তা: যারা ইতিমধ্যে পোস্টটি দেখেছেন তাদের প্রতিক্রিয়া কেমন? (বিশেষ করে আপনার বন্ধুরা)। তারা কি এটা শেয়ার করছে, মন্তব্য করছে, এটাকে উপেক্ষা করছে, সেই রাগান্বিত মুখটা ভাঙছে?

সাম্প্রতিক: পোস্টটি কতটা নতুন? নতুন পোস্ট উচ্চ স্থাপন করা হয়. অবশ্যই, এই সিগন্যালগুলির বেশিরভাগের প্রয়োজন যে Facebook তার ব্যবহারকারীদের আচরণ ট্র্যাক করবে। যেখানে গোপনীয়তা বনাম ব্যক্তিগতকরণ বিতর্ক উঠে আসে। (আবার।)

অবশেষে, 2021 সালে, Facebook তাদের তথ্য সম্পর্কে ব্যবহারকারীদের সাথে স্বচ্ছ হওয়ার প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। উদাহরণস্বরূপ, আপনার তথ্য অ্যাক্সেস করার সরঞ্জামটি লোকেদের কেন মুন বুট-এর বিজ্ঞাপন দেখতে থাকে তা খুঁজে বের করতে সাহায্য করার কথা। (সম্ভবত আপনি আপনার অবস্থান ... চাঁদে সেট করেছেন?)

গোপনীয়তা বনাম ব্যক্তিগতকরণ বিতর্ক কিভাবে হবে তা দেখা বাকি। Hootsuite-এ, আমরা আশাবাদী: যেভাবেই হোক, কোনো ভালো বিপণনকারী ভয়ঙ্কর বা বিরক্তিকর হতে চায় না। এবং এমনকি Facebook ব্যবহারকারীদের সিংহভাগ প্রাক-টার্গেটিং দিনগুলিতে ফিরে যেতে বেছে নিলেও, Facebook-এ জৈব এবং অর্থপ্রদানকারী উভয় সামগ্রী এখনও বাধ্যতামূলক, তথ্যপূর্ণ, বিনোদনমূলক এবং অনুপ্রেরণাদায়ক হতে হবে।

সুতরাং, এরই মধ্যে, আসুন দেখে নেওয়া যাক কিভাবে ব্র্যান্ডগুলি তাদের জৈব নাগালের অপ্টিমাইজ করার জন্য অ্যালগরিদমের সাথে

শেয়ার করুন

ad image

সম্পর্কিত সংবাদ