Monir
প্রকাশ ০১/০৩/২০২২ ০১:২৮পি এম

গত বছর ৩৪৬ পুলিশ সদস্যকে হারিয়েছি: আইজিপি

গত বছর ৩৪৬ পুলিশ সদস্যকে হারিয়েছি: আইজিপি
ad image
মৃত পুলিশ সদস্যদের পরিবারের খোঁজ-খবর নিচ্ছেন আইজিপি
দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে মারা যাওয়া পুলিশ সদস্যদের স্মরণ করে পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) ড. বেনজীর আহমেদ বলেছেন, ‘গত বছর ৩৪৬ জন পুলিশ সদস্যকে হারিয়েছি। এর মধ্যে ১৩৮ জনকে কর্তব্যরত অবস্থায় হারিয়েছি। আমরা আমাদের সহকর্মীকে হারিয়েছি, প্রিয় মুখকে হারিয়েছে পরিবার। অনেকে পরিবারের একমাত্র উপার্জনক্ষম ব্যক্তিকে হারিয়েছে। সেই পরিবারটিকে ঘুরে দাঁড়াতে আরও ২০ বছর লাগে। তাদের কিসের মধ্য দিয়ে যেতে হয় তারাই বোঝে।’

পুলিশ মেমোরিয়াল ডে ২০২২ উপলক্ষে মঙ্গলবার (১ মার্চ) ২০২১ সালে কর্তব্যরত অবস্থায় জীবন উৎসর্গকারী পুলিশ সদস্যদের পরিবারকে স্বীকৃতি স্মারক প্রদান অনুষ্ঠানে আইজিপি এসব কথা বলেন। রাজধানীর মিরপুরের পুলিশ স্টাফ কোয়ার্টারে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।মৃত পুলিশ সদস্যদের স্মরণ করে অনুষ্ঠানে আইজিপি বলেন, ‘নিজের ওপর অর্পিত দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে পুলিশ সদস্যরা যে ধরনের আত্মত্যাগ করছেন, তা পুলিশ বাহিনীর প্রতিটি সদস্যের চেতনাকে আরও অনুপ্রাণিত করে। আত্মার মাগফেরাত, পরিবারের জন্য সমবেদনা– এই দুটি কথা তাদের জন্য পর্যাপ্ত নয়।’


আইজিপি আরও বলেন, ‘হিরোকে যে জাতি স্বীকৃতি দিতে পারে না, সে জাতি হিরো তৈরি করতে পারে না। ১৯৭১ একটা প্রমাণ, জাতীয় বীরেরা কী করতে পারে, ১৯৬৫ সালের যুদ্ধে ভারত-পাকিস্তান যুদ্ধে ভারতীয় সেনাবাহিনীকে ঠেকিয়ে দেওয়া হয়েছিল। বেঙ্গল রেজিমেন্ট ট্যাংকের বহর ঠেকিয়ে দিয়েছিল। যখনই সুযোগ পেয়েছে বাঙালি জাতি প্রমাণ করেছে, আমরা হিরো। শান্তির সময়ে পুলিশ যুদ্ধে লিপ্ত থাকে, এ যুদ্ধ অশান্তির বিরুদ্ধে, সন্ত্রাস সৃষ্টি করে যারা সমাজের শান্তি ও নিরাপত্তা বিঘ্ন করতে চায় তাদের বিরুদ্ধে। সব সময় আমরা এ যুদ্ধে লিপ্ত। যুদ্ধ হলে ক্ষয়ক্ষতি নিশ্চিত। প্রতিনিয়ত যেহেতু যুদ্ধ করছি, রাষ্ট্রীয় নিরাপত্তা, সামাজিক নিরাপত্তার জন্য সেজন্য আমরাও প্রতিবছর আত্মত্যাগ করছি।’

অনুষ্ঠানে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব আখতার হোসেন বলেন, ‘পুলিশ বাহিনীর কোনও সদস্যের নেতিবাচক বিষয় প্রকাশিত হলে পুরো বাহিনীর ওপর তা প্রভাব ফেলে। আমরা কোনও ভুলত্রুটি থাকলে পরামর্শ দেওয়ার আহ্বান জানাচ্ছি। পুলিশ বাহিনীর একটি ঐতিহ্য রয়েছে। কাজ করতে গিয়ে যারা নিহত হয়েছেন, শাহাদাৎ বরণ করেছেন, তাদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করছি। যারা নিহত হয়েছেন তাদের পরিবারের সদস্যদের প্রতি খোঁজ খবর রাখবেন।’

এ সময় কর্তব্যরত অবস্থায় আত্মোৎসর্গকারী পুলিশ সদস্যদের পরিবারের মাঝে বিভিন্ন সহায়তা তুলে দেন আইজিপি। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

শেয়ার করুন

ad image

সম্পর্কিত সংবাদ