Monir
প্রকাশ ২৭/০২/২০২২ ১০:২৮পি এম

নৌযানে ধারণ ক্ষমতার অতিরিক্ত যাত্রী বহন বন্ধসহ ১২ দফা দাবি

নৌযানে ধারণ ক্ষমতার অতিরিক্ত যাত্রী বহন বন্ধসহ ১২ দফা দাবি
ad image
নৌযানে ধারণ ক্ষমতার অতিরিক্ত যাত্রী বহন বন্ধ করা, কর্মচারী ও ঘাট শ্রমিকদের হাতে যাত্রী হয়রানি রোধ এবং শিক্ষার্থীদের অর্ধেক ভাড়া নিশ্চিত করাসহ ১২ দফা দাবিতে বরিশালে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। বরিশাল নৌ-যাত্রী ঐক্য পরিষদের ব্যানারে আজ রবিবার সকাল সাড়ে ১০ টায় নগরীর সদর রোডের অশ্বিনী কুমার হলের সামনে এই মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

সংগঠনের আহ্বায়ক দেওয়ান আবদুর রশিদ নীলুর সভাপতিত্বে মানববন্ধনে সদস্য সচিব ইঞ্জিনিয়ার মো. হারুন বিশ্বাস, শফিকুর রহমান মিরাজ, শান্ত রঞ্জন চৌধুরী, জামান কবির ও সাকিবুল ইসলাম শাফিন বক্তব্য দেন।

বক্তারা বলেন, দক্ষিণাঞ্চলে যাতায়াতের অন্যতম বাহন নৌযান। এই খাতে অনেক অত্যাধুনিক যান যুক্ত হলেও সেবার মান বাড়েনি, বরং কমেছে। সাম্প্রতিক সময়ে অভিযান-১০ লঞ্চে অগ্নিকাণ্ডসহ আরও কিছু ঘটনা এর জলন্ত প্রমাণ।
মানববন্ধনে ট্রেন, বাসস্ট্যান্ড ও বিমানবন্দরের মতো নৌ-পরিবহন টার্মিনালের ইজারা প্রথা বাতিল করে টার্মিনাল টোল আদায় বন্ধ, নৌ-পরিবহনে বর্ধিত ভাড়া প্রত্যাহার করে পূর্বের ভাড়া কার্যকর করা, পর্যাপ্ত বয়া, লাইফ জ্যাকেটসহ সর্বোচ্চ যাত্রী নিরাপত্তা নিশ্চিত করা, প্রতিটি নৌযানে কর্মচারীদের অগ্নিনির্বাপক যন্ত্রের ব্যবহারের প্রশিক্ষণ প্রদান, যাত্রী বীমা চালু, লঞ্চের ইঞ্জিন রুমের পাশ থেকে খাবার হোটেল/ক্যান্টিন স্থানান্তর, দক্ষ মাস্টার, সুকানী ও গ্রিজার নিয়োগ করা, ফিটনেসবিহীন নৌযান সার্ভিস থেকে প্রত্যাহার, লঞ্চ ও স্টিমারে চা দোকান ও ক্যান্টিনে অতিরিক্ত মূল্য সহনীয় পর্যায়ে নামিয়ে আনা, ভ্রমণকালীন সময়ে যাত্রীদের চিকিৎসা সেবা নিশ্চিত করা, অজ্ঞান পার্টি-মলম পার্টিসহ যাত্রীদের সাথে প্রতারণার দায় ও ক্ষয়-ক্ষতি নৌযান কর্তৃপক্ষকে নিশ্চিত করা এবং ঢাকা-বরিশাল-খুলনা রুটে সপ্তাহে ৭ দিন স্টিমার/অত্যাধুনিক দ্রুতগতি সম্পন্ন নৌযান চালু করার দাবি জানানো হয়।

শেয়ার করুন

ad image

সম্পর্কিত সংবাদ