About Us
Mohammad Shahin Hossain
প্রকাশ ২৪/০৮/২০২০ ০৭:৫৮পি এম

গ্রেনেড হামলার মূল পরিকল্পনাকারী তারেক রহমান

গ্রেনেড হামলার মূল পরিকল্পনাকারী তারেক রহমান Ad Banner

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজম এমপি বলেছেন, ৭১ এর পরাজিত অপশক্তিই ১৯৭৫ এ বঙ্গবন্ধুকে স্বপরিবারে হত্যা করেছে। তারাই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে বারবার হত্যার চেষ্টা করেছে। সেই অপশক্তি আজও সক্রিয়। 


আল্লাহ্ পাক যদি কাউকে রক্ষা করে পৃথিবীর কোন শক্তি নাই যে তাকে হত্যা করে। আল্লাহ্ পাকই সেদিন শেখ হাসিনাকে বাঁচিয়েছে। শুধু শেখ হাসিনা বা আওয়ামী লীগ নয়, বঙ্গবন্ধুর আদর্শে বিশ্বাসীদের তারা নিশ্চিহ্ন করতে চেয়েছিল। সেই হামলার আইভি রহমান সহ ঝরে যায় ২৪টি তাজা প্রাণ। একুশে আগস্টের গ্রেনেড হামলার মূল পরিকল্পনাকারী তারেক রহমান লন্ডনে পলাতক। তাকে দেশে ফিরিয়ে এনে রায় কার্যকর করা হবে।


তিনি আরও বলেন, ‘জিয়াউর রহমান আসল মুক্তিযোদ্ধা ছিলেন না, তিনি পাকিস্তান গোয়েন্দা সংস্থার (আইএসআই) এজেন্ট ছিলেন। তিনি পাকিস্তানি গোয়েন্দা সংস্থা আইএসআইতে চাকরি করতেন। পাকিস্তানিরা কোনও বাঙ্গালি সেনা অফিসারকে বিশ্বাস করতো না। জিয়াউর রহমান জন্ম সূত্রে পাকিস্তানি ছিলেন, এ জন্য তার আইএসআইতে চাকরি হয়েছিল। জামালপুর জেলা যুবলীগ আয়োজিত একুশে আগস্ট গ্রেনেড হামলা দিবসের  আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।  রাতে জামালপুর জেলা আওয়ামী লীগের দর্লীয় কার্যালয়ে আগস্টের গ্রেনেড হামলায় শহীদদের স্মরণে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।


জামালপুর জেলা যুবলীগের সভাপতি রাজন সাহা রাজুর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক ফারহান আহমেদের সঞ্চালনায়  বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এ্যাডভোকেট মুহাম্মদ বাকী বিল্লাহ, সাধারণ সম্পাদক ফারুক আহাম্মেদ চৌধুরী, সহ-সভাপতি সৈয়দ আতিকুর রহমান ছানা, পৌর মেয়র মির্জা সাখাওয়াতুল আলম মনি, পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বিজন কুমার চন্দ, জেলা কৃষকলীগের সাধারণ সম্পাদক হুরমুজ আলী হিরো, জেলা যুবলীগের সহ-সভাপতি আনোয়ার হোসেন টুরু, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এ্যাডভোকেট রাশেদুল ইসলাম খোকন, মহিলা বিষয়ক সম্পাদিকা ফারজানা বাঁধন, জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক নাজমুল আহসান জনি, জেলা যুব মহিলা লীগের সভাপতি ফারহানা সোমা, জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি নিহাদুল আলম নিহাদ প্রমুখ। 


শেয়ার করুন

সম্পর্কিত সংবাদ