Monir
প্রকাশ ২১/০২/২০২২ ০৯:৫৭পি এম

ট্রাম্পের ট্রুথ সোশ্যাল অ্যাপ এখন অ্যাপলের অ্যাপ স্টোরে

ট্রাম্পের ট্রুথ সোশ্যাল অ্যাপ এখন অ্যাপলের অ্যাপ স্টোরে
ad image
সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ট্রুথ সোশ্যাল গতকাল রোববার থেকে অ্যাপলের অ্যাপ স্টোরে পাওয়া যাচ্ছে।

যেসব গ্রাহক অ্যাপটি প্রি অর্ডার করেছিলেন, তাদের ফোনে স্বয়ংক্রিয়ভাবে অ্যাপটি ডাউনলোড হয়ে যায়। বাকিরা বাংলাদেশ সময় রোববার সকাল প্রায় ১১টার থেকে তাদের আইফোন ও অন্যান্য অ্যাপল ডিভাইসে অ্যাপটি ডাউনলোডের সুযোগ পেয়েছেন।

কিছু গ্রাহকের অভিযোগ, তারা অ্যাকাউন্ট নিবন্ধন করতে যেয়ে সমস্যায় পড়ছেন। কাউকে আবার অপেক্ষমাণদের তালিকায় রাখা হয়েছে। অ্যাপ থেকে বার্তা আসে, 'অনেক বেশি চাহিদা থাকায় আপনাকে অপেক্ষমাণদের তালিকায় যুক্ত করা হলো।'

এর আগে বার্তাসংস্থা রয়টার্স জানিয়েছিল, কিছু সুনির্দিষ্ট মানুষকে অ্যাপটি নিরীক্ষা করার আমন্ত্রণ জানানো হয়। তারা অ্যাপের বেটা ভার্সান ব্যবহারের সুযোগ পান।

ইউএস ক্যাপিটল হিলে আক্রমণের ঘটনার পর ট্রাম্পকে ইউটিউব, টুইটার ও ফেসবুক থেকে নিষিদ্ধ করা হয়। তার বিরুদ্ধে সহিংসতায় উস্কানি দেওয়া বার্তা প্রকাশের অভিযোগে এ ব্যবস্থা নেওয়া হয়।


ট্রাম্প মিডিয়া অ্যান্ড টেকনোলজি গ্রুপ (টিএমটিজি) নামক একটি সংস্থা ট্রুথ সোশ্যালের নেপথ্যে কাজ করছে। ট্রাম্পের মালিকানাধীন এ প্রতিষ্ঠানের নেতৃত্ব দিচ্ছেন সাবেক রিপাবলিকান প্রতিনিধি ডেভিন নুনেস। টিএমটিজি এবং আরও কয়েকটি প্রতিষ্ঠান নিজেদেরকে 'মুক্ত চিন্তা' প্রকাশের প্ল্যাটফর্ম হিসেবে দাবি করছে।


তবে এ যাবত এ ধরনের কোনো প্রতিষ্ঠানই তেমন একটা জনপ্রিয়তা পায়নি। সেগুলোর মধ্যে আছে টুইটারের প্রতিদ্বন্দ্বী গেটার, পার্লার ও ইউটিউবের মত ভিডিও স্ট্রিমিং সাইট রাম্বল।

রোববার নুনেস ফক্স নিউজকে জানান, 'এ সপ্তাহ থেকে আমরা অ্যাপলের অ্যাপ স্টোরে অ্যাপটি সবার জন্য উন্মুক্ত করে দেব। এটি একটি অসাধারণ ঘটনা হবে কারণ অনেক বেশি মানুষ আমাদের প্ল্যাটফর্মে আসার সুযোগ পাবেন।'

'খুব সম্ভবত মার্চের মধ্যে আমাদের সব কার্যক্রম পূর্ণাঙ্গভাবে চালু হয়ে যাবে, অন্তত যুক্তরাষ্ট্রে', যোগ করেন তিনি।

উল্লেখ্য, ২০২১ এর অক্টোবরে ট্রুথ সোশ্যালের ঘোষণা দেওয়ার কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই সাইটটি হ্যাকারদের কবলে পড়ে। শুধু বেটা টেস্টারদের জন্য উন্মুক্ত থাকার কথা বলা হলেও একটি লিংক ইন্টারনেটে ছড়িয়ে পড়ে, যার মাধ্যমে ব্যবহারকারীরা ইচ্ছেমতো নামে অ্যাকাউন্ট খুলতে সক্ষম হন। ফলে প্ল্যাটফর্মটিতে অসংখ্য ডোনাল্ড ট্রাম্প, মাইক পেন্স ও অন্যান্য তারকাদের নামে নকল অ্যাকাউন্ট দেখা যায়।

সে সময় ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেছিলেন, 'আমি ট্রুথ সোশ্যাল ও টিএমটিজি তৈরি করেছি, যাতে বড় প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানগুলোর স্বৈরাচারী আচরণের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো যায়। আমরা এমন এক বিশ্বে বসবাস করি, যেখানে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে তালেবানদের বিপুল পরিমাণ উপস্থিতি সহ্য করা হচ্ছে, কিন্তু আপনাদের প্রিয় মার্কিন প্রেসিডেন্টের কণ্ঠ কেড়ে নেওয়া হয়েছে।'

শেয়ার করুন

ad image

সম্পর্কিত সংবাদ