KAMRUL ISLAM KAMAL
প্রকাশ ১৫/০২/২০২২ ১২:১১এ এম

শিবপুরে প্রতিপক্ষের হামলায় তিন বাড়িঘর ভাংচুরের অভিযোগ

শিবপুরে প্রতিপক্ষের হামলায় তিন বাড়িঘর ভাংচুরের অভিযোগ
ad image
নরসিংদীর শিবপুরে প্রতিপক্ষকে উচ্ছেদ করার করতে তিনটি বসতঘর ভাংচুরের অভিযোগ উঠেছে। সোমবার সকাল ৯টায় উপজেলার সাধারচর ইউনিয়নের শুকুন্দী গ্রামে এই ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, শুকুন্দী গ্রামের জামালউদ্দিন ও নুরুল হক গং এর মধ্যে ৮৭ শতাংশ জমি নিয়ে দীর্ঘদিন যাবত বিরোধ চলে আসছে। এ নিয়ে দু’পক্ষের মধ্যে নরসিংদী আদালতে মামলাও চলমান। বিরোধকৃত জমিতে প্রায় ১৫ বছর যাবত বসতঘর নির্মাণ করে বসবাস করছেন জামাল উদ্দিন।

তিনি উক্ত জমি তার দাদীর অংশ হিসেবে দলিলমূলে মালিক হয়ে দখলে রয়েছেন বলে জানান। কিন্তু প্রতিপক্ষ তাদেরকে উক্ত জমি থেকে উচ্ছেদ করার লক্ষে ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসী এনে হামলা চালিয়ে বাড়িঘর ব্যাপক ভাংচুর করে ঘরের বেড়া, চালা ও আসবাপত্র অন্যত্র নিয়ে যায় এবং জমির চারপাশ বাঁশ দিয়ে বেড়া দেয়।

ভাংচুরকৃত ঘরগুলোর মধ্যে জামাল উদ্দিনের দুটি ও তার ভাই খোরশেদ এর একটি। উক্ত হামলায় স্থানীয় ইউপি সদস্য অলিউল্লাহর ইন্ধন রয়েছে বলে অভিযোগ। হামলাকারীরা হলো, স্থানীয় জিয়াউল হক, জাহিদুল ইসলাম, স্বরণ, ইয়াছিন, কারিম, বিল্লাত, টিপু প্রমুখ। তারা এলাকার চিহিৃত অপরাধী বলেও জানান এলাকাবাসী।

অপরদিকে নুরুল হকের ভাই মাজহারুল মাস্টার জানান, জামাল উদ্দিন উক্ত জমিতে জঙ্গল ও গর্ত থাকায় এই জমির পরিবর্তে অন্য একটি জমি ভোগদখল করে আসছে। কিন্তু সে পরবর্তীতে বিরোধকৃত জমিও দখলে নিয়ে নেয়। ফলে দু পক্ষের মধ্যে ১৫ বছর যাবত বিরোধ চলছে। আমরা আমাদের জমি দখলে নেওয়ার চেষ্টা করছি।

জামাল উদ্দিনের স্ত্রী আছিয়া বলেন, নুরুল হকের অভিযোগ সত্য নয়। আমরা আমাদের জায়গায় বসবাস করছি। তারা অবৈধভাবে আমাদের জমি দখল করার জন্য জোরপূর্বক ঘরবাড়ি ভেঙ্গে নিঃস্ব করে দিয়েছে। আমরা এখন কোথায় যাব, কোথায় থাকব।

এ বিষয়ে স্থানীয় ইউপি সদস্য অলিউল্লাহর সাথে ফোনে যোগাযোগ করলে তিনি জানান, আমি কোন পক্ষের সাথে জড়িত নই। আমি বিষয়টি ইউপি চেয়ারম্যানকে অবগত করেছি যাতে সমাধান করা যায়।

শিবপুর মডেল থানার ওসি মোঃ সালাহউদ্দিন মিয়া বলেন, আমি ঘটনার সংবাদ পেয়ে সাথে সাথে পুলিশ পাঠিয়েছি। বিষয়টি জমিসংক্রান্ত বিরোধ এবং আদালতে মামলা রয়েছে।

শেয়ার করুন

ad image

সম্পর্কিত সংবাদ