Nazrul
প্রকাশ ১৯/০১/২০২২ ০৬:৩৮পি এম

সিনেমায় ফিরতে চান মার্কিন প্রবাসী জনা

সিনেমায় ফিরতে চান মার্কিন প্রবাসী জনা
ad image
সুমনা জনা। বর্তমান সময়ের অনেকেরই এই নাম জানার কথা নয়। তবে ২০০২ থেকে ২০০৭ পর্যন্ত যাঁরা ঢাকাই সিনেমা দেখেছেন, তাঁরা জানেন, এক সময়ের ব্যস্ত নায়িকা তিনি। কতটা ব্যস্ত? ২০০৭ সালে যুক্তরাষ্ট্রে স্থায়ী হওয়ার সময় এই নায়িকার হাতে ছিল ১৩ সিনেমা।

সেই থেকে আমেরিকায় স্বামী-সন্তান নিয়ে বসবাস করছেন। দীর্ঘদিন পর বিএফডিসিতে দেখা মিলেছে এই নায়িকার।

একটি গণমাধ্যম দেয়া আলাপচারিতায় জনা জানিয়েছেন, ১৭ ফেব্রুয়ারি আবার দেশ আসছেন তিনি। এর পর আসবেন জুলাইয়ে; থাকবেন দীর্ঘ দিন। তখন তেমন গল্পের সিনেমা পেলে আবার কাজ করতে চান জনা।

২০০৭ সালে এত ব্যস্ত নায়িকা আপনি, তবুও দেশ ছাড়লেন কেন? এমন প্রশ্নে জনার উত্তর, ‘সেদিন আমি আমেরিকায় ঢালিউড অ্যাওয়ার্ড অনুষ্ঠানে গিয়েছিলাম। সেখানকার পরিবেশ ভালো লেগে গেল। এ ছাড়া ওই সময় চলচ্চিত্রে অস্থিরতা শুরু হয়, মান্না ভাই মারা গেলেন। অভিভাবক হারিয়ে ধাক্কা খেলাম। বলতে পারেন এসব কারণে দেশ ছাড়া।’

নায়িকার তথ্যমতে, ২০০২ সালে ‘হৃদয়ের বাঁশি’ সিনেমার মাধ্যমে ঢাকাই সিনেমায় নাম লেখান সুমনা জনা। শাকিল খান, মান্না, শাকিব খান, রিয়াজ, রুবেলের বিপরীতে সমানতালে অভিনয় করেছেন জনা। ক্যারিয়ারে ৪০টি সিনেমা উপহার দিয়েছেন এই চিত্রনায়িকা।

আবার কাজে ফিরতে চান কি না, এমন প্রশ্নে নায়িকার উত্তর, ‘আমি এখন বেশির ভাগ সময় বাংলাদেশে থাকব। ভালো সিনেমা মনে হলে, আমার মতো করে গল্প কেউ বানাবে, তখন আমি অভিনয় করতে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করব। ভালো গল্প পেলে অবশ্যই কাজ করব।’

এই নায়িকা আরও যুক্ত করেছেন, ‘এই ক্যারিয়ারে একটা আফসোস হচ্ছে এতগুলো সিনেমা করেও ন্যাশনাল অ্যাওয়ার্ড পাইনি।’

ব্যক্তিজীবনে চিত্রনায়ক শাকিল খানের সঙ্গে প্রথমে বিয়ে করেন সুমনা জনা। তবে তা বেশি দিন স্থায়ী হয়নি। ২০০৯ সালে জুবায়ের হোসেইনকে ফের বিয়ে করেন তিনি।

শেয়ার করুন

ad image

সম্পর্কিত সংবাদ