মো: এমদাদুল হক শ্রাবণ - (Dhaka)
প্রকাশ ১৮/০১/২০২২ ০৪:১৮পি এম

Columns: ভুল না করেও সরি বলা পারিবারিক শিক্ষা

Columns: ভুল না করেও সরি বলা পারিবারিক শিক্ষা
ad image
ভুল না করেও সরি বলাটা পারিবারিক শিক্ষা। এটা অনেক মানুষের মধ্যে নাই। তারা নিজেকে খুব বড় মনে করে। অন্য জনকে ছোট করে করে কথা বলাটা এইসব মানুষের পারিবারিক শিক্ষা।

পারিবারিক শিক্ষার সূচনা মানবজীবন থেকেই শুরু হয় একটি পরিবারের মাঝে। একটি শিশু জন্মের সাথে সাথেই পরিবারের সদস্য হয়ে যায়।
শিশুটির ভরণপোষণ,দেখাশোনা, ভালোমন্দ সবকিছুই পরিবারের সদস্যরা করে থাকে। আর সেই পরিবারের সদস্যদের মধ্যে যদি কারো ভাষা বা চারিত্রিক সমস্যা থাকে তাহলে সেটা সন্তানের উপর প্রভাব পড়ে।

আজকাল বাবা মায়ের চাইতে সন্তানরা বেশি খারাপ হচ্ছে।
শিশুর একটি সহজাত বৈশিষ্ট্য হল অনুকরণ করা। শিশুর সামনে আগে বাবা মা ডাকলে পরে তারা ডাকতে শিখে। বাবা মা হয়ে ওঠে প্রথম অনুকরণীয় মডেল। বাবা মায়ের হাত ধরেই শিশুর প্রথম পারিবারিক শিক্ষা শুরু হয়।
খেলাধুলায়, কথাবার্তায়, আচার-আচরনে, পরিবারের প্রভাব সুস্পষ্টভাবে ফুটে উঠে।

সঠিক পারিবারিক শিক্ষায় শিক্ষিত একটি শিশু পরবর্তীতে দেশের সম্পদে পরিণত হয়। ছোট শিশু ধীরে ধীরে বয়ঃপ্রাপ্ত হবার ধারাবাহিকতায় পারিবারিক শিক্ষার ভূমিকা অনস্বীকার্য। একটি মেয়ে তার মায়ের অনুকরণে কাজ করতে শিখে, নম্রভাবে কথা বলতে শিখে, কিন্তু সেই মডেল মায়ের ই যদি ভাষাগত সমস্যা থাকে তাহলে তো মেয়ের মধ্যেও সেটা পরিলক্ষিত হবে সেটাই স্বাভাবিক।

একইভাবে একজন ছেলে তার বাবার বাহ্যিক আচার-আচরণ অনুকরণ করতে শিখে। বাবার কথা বলার ধরন,বাবার চারিত্রিক বৈশিষ্ট্য সবকিছু। কিন্তু একজন বাবার মধ্যে যখন এসব থাকেনা তখন তার সন্তান ও অসভ্য হয়ে বেড়ে উঠে। একজন আদর্শ বাবা-মা সঠিক পারিবারিক শিক্ষায় সন্তানকে শিক্ষিত করতে পারে।পরিবারে একটা ছেলে যখন মা বোন কে সম্মান করতে পারেনা তখন সে বাইরের মেয়েদের ও সম্মান করতে শেখেনা। আর এমন পরিবারে বেড়ে উঠা মানুষগুলো খুবই আত্নকেন্দ্রীক /স্বার্থপর।

একটি ছেলে/মেয়ে বাইরে কিভাবে চলাফেরা করবে, কার সাথে বন্ধুত্ব করবে, মেয়েদেরকে কিভাবে সম্মান করবে, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমকে কিভাবে ব্যবহার করবে, প্রতিবেশি ও আত্মীয়ের সাথে কেমন আচরন করবে এমন অনেক আচরণবিধি পরিবার থেকেই শিখে।

পরিবারের লোকজন ভালো হলে সন্তান ও বেড়ে উঠে সভ্যভাবে।

বর্তমানে পারিবারিক শিক্ষার প্রকৃতি আমাদের বাবা-মায়ের জীবনধরণ দেখলে বুঝতে পারি তাদের মাঝে পারিবারিক শিক্ষার প্রভাব কত গভীরভাবে কাজ করেছে।
মা সারাদিন ঘরের কাজ করেন, সন্তান দেখাশোনা করেন, মেহমান আপ্যায়ন করেন, বিপদে আপদে পাশে থাকেন, অসুস্থ হলে সেবা করেন, সবকিছু সামলে সংসার গুছিয়ে রাখেন। আর বাবা সংসার গুছিয়ে রাখার জন্য কত কাজ করেন। কিন্তু তাদের এই শ্রমের মূল্য দেয়ার জন্য সন্তানকেও সঠিকভাবে পারিবারিক শিক্ষা দেয়া প্রয়োজন।
পরিশেষে বলতে চাই, আপনার সন্তান কে ভবিষ্যতে যদি একজন ভালো মানুষ হিসেবে দেখতে চান তাহলে পারিবারিক শিক্ষার কোন বিকল্প নাই।

জান্নাত রুমু
লেকচারার,বিজনেস ডিপার্টমেন্ট।
(সেন্ট্রাল ইউনিভার্সিটি অব সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি)

শেয়ার করুন

ad image

সম্পর্কিত সংবাদ