Md.Omor Ali Mollah - (Gazipur)
প্রকাশ ১৪/০১/২০২২ ০৬:১১পি এম

জমজমাট মাছের মেলা

জমজমাট মাছের মেলা
ad image
গাজীপুর জেলার কালীগঞ্জ উপজেলার জাংগালীয়া, জামালপুর ও বক্তারপুর এই তিন ইউনিয়নের সীমানায় পৌষ মাসের শেষ দিনে প্রতিবছরের ন্যায় এবারো বিনিরাইলে বসেছে জমজমাট মাছের মেলা। গাজীপুর জেলার কালীগঞ্জ উপজেলার বিনিরাইল এলাকার এই মেলাটি পুরনো ঐতিহ্য বহন করে আসছে আজও।ঐ এলাকার জনগণর সাথে কথা বলে জানা যায় এ মেলাটি এক সময় সনাতন ধর্মালম্বী লোকদের মধ্যে সীমিত থাকলেও বর্তমানে এটি এ অঞ্চলের মানুষের কাছে শীতকালীন সবচেয়ে বড় উৎসবে পরিনত হয়েছে।

শুক্রবার (১৪ জানুয়ারি) সকালে সরেজমিনে বিনিরাইল এলাকায় ঐতিহ্যবাহী এই মাছের মেলায় গিয়ে দেখা যায় মাছ কেনাবেচার জমজমাট দৃশ্য। এ উপলক্ষে বসেছে অন্যান্য বস্ত্র, চারু-কারু, প্রসাধনী, ফার্নিচার, খেলনা, তৈজষপত্র, মিষ্টি ও কুটির শিল্পের নানা পণ্যেরও সহস্রাধিক স্টল।

দেখা গেছে, বিরাট এলাকাজুড়ে মাছের পসরা সাজিয়ে বসেছেন মাছ বিক্রেতারা। সহস্রাধিক স্টলে দেশের বিভিন্ন জায়গার মাছ বিক্রেতারা এখানে মাছ বিক্রির জন্য ছুটে আসেন। তারা নানা অঙ্গভঙ্গি করে সুর ধরে ডেকে ক্রেতাদের দৃষ্টি আকর্ষণ করছেন। কেউ কেউ বড় আকৃতির মাছ উপরে তুলে ধরে ক্রেতাদের ডাকছেন।

আয়োজক সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার বিভিন্ন প্রান্ত থেকে লোকজন তো এসেছেনই। এর বাইরে বিভিন্ন জেলা ও উপজেলা থেকে অনেকে এসেছেন উপজেলার সর্ববৃহৎ এই মাছের মেলায়। গাজীপুর, টাঙ্গাইল, নারায়ণগঞ্জ, নরসিংদী, ভৈরব, কিশোরগঞ্জ, ময়মনসিংহ থেকে অনেক মানুষ কেবল এই মেলা উপলক্ষেই কালীগঞ্জে এসেছেন।

প্রতি বছর অগ্রহায়ণের ধান কাটা শেষে পৌষ-সংক্রান্তিতে অনুষ্ঠিত হয় এ মেলা। তখন আয়োজন করা হয় নবান্ন উৎসবেরও। এবারের মেলায় প্রায় ৫ শতাধিক মাছ ব্যবসায়ী বাহারি মাছ নিয়ে এসেছেন। মেলায় মাছ ছাড়াও মাছের সঙ্গে এই মেলায় আসবাবপত্র, খেলনা, মিষ্টি, বস্ত্র, হস্ত ও কুটির শিল্পের নানা পণ্যেরও আমদানি হয়। মূলত এটা মাছের মেলা হলেও এলাকায় এটাকে জামাই মেলা বলে।কারন এ মেলাকে গিরে এলাকার জামাইদের শ্বশুরালয়ে দাওয়াত করা হয়। কিনা হয় মেলা থেকে বড়মাছ।ঘরে ঘরে তৈরি হয় নানা রকম পিঠা পায়েস। ঐএলাকায় তৈরি হয় আনন্দ গন পরিবেশ।

শেয়ার করুন

ad image

সম্পর্কিত সংবাদ