Ali Sohel - (Kishoreganj)
প্রকাশ ০৩/০১/২০২২ ১০:১৭পি এম

Effects of winter: শীতের প্রভাবে বেড়েছে ঠান্ডা জনিত রোগ

Effects of winter: শীতের প্রভাবে বেড়েছে ঠান্ডা জনিত রোগ
ad image
দিনে সূর্যালোকে জীবনযাত্রা স্বাভাবিক। সন্ধ্যা হলেই হালকা কুয়াশায় ছেয়ে যাচ্ছে চারপাশ। পৌষের শেষ দিকে সারারাত গাছের পাতা নিঙড়ে টিনের চালে পড়া শিশির বিন্দুর টিপটপ শব্দ জানান দিচ্ছে শীতের তীব্রতা। কিশোরগঞ্জ জেলার শীতের আগমনের চিত্র এটি। দিনের তাপমাত্রা অনেকটাই সহনীয় থাকলেও সন্ধ্যা হতেই তা হ্রাস পেয়ে বাসিন্দাদের উষ্ণ কাপড় পরিধানে বাধ্য করছে।

উপজেলার সর্বত্র গত কয়েক দিন থেকে দরজায় কড়া নাড়ছে শীতের তীব্রতা। বাতাসে-শিশিরে অনুভূত হচ্ছে ঠান্ডা। ফলে শীতের প্রভাবে দেখা দিয়েছে জ্বর, সর্দি, কাশি, হাঁচি, শ্বাসকষ্ট ছাড়াও নানা রোগ-বালাই। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, স্বাস্থ্যের প্রতি সচেতন থেকে কিছু বিষয় খেয়াল রাখলেই এ সময়টাতে অসুস্থতা থেকে মুক্তি পাওয়া সম্ভব। 

কিশোরগঞ্জ জেলার কুলিয়ারচরের বিভিন্ন এলাকায় সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, বাজারে শীতকালীন মৌসুমি সবজি, গরম কাপড় বিক্রিসহ প্রকৃতির পরিবর্তনে শীতের আমেজ বিরাজ করছে সবদিকে। উপজেলার বিভিন্ন হাসপাতালে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, শীতের শুরু থেকেই জ্বর, সর্দি, কাশি, হাঁচি, এলার্জি, শ্বাসকষ্ট ছাড়াও নানা ধরনের রোগে আক্রান্ত ব্যক্তিরা চিকিৎসা সেবা নিতে বিভিন্ন হাসপাতাল ও ক্লিনিকে ছুটে বেড়াচ্ছেন। আক্রান্তদের মধ্যে শিশু ও বৃদ্ধদের সংখ্যাই বেশি।

উপজেলার লক্ষীপুর এলাকার বাসিন্দা আমেনা খাতুন নামের এক গৃহিনী জানান, তাদের পরিবারের সবারই গত কয়েকদিন থেকে কমবেশি সর্দি, কাঁশি, জ্বর ও মাথা ব্যথায় ভূগছেন। হঠাৎ করে ঠান্ডা নামার কারনেই এমটি হয়েছে বলেও তিনি উল্লেখ করেন।   

উপজেলা হাসপাতালের স্বাস্থ্য ও প.প. সহকারী মোঃ জাকির হোসেন বলেন, প্রতিবছর শীতের শুরুতে এ্যালার্জি ও এ্যাজমা অনেকক্ষেত্রে একসাথে হয়ে থাকে। এই দুই রোগের প্রভাব শীতকালেই বেশি থাকে। এ রোগে সর্দি, হাঁচি, কাশির হয়। সেক্ষেত্রে যেসব জিনিস থেকে এ্যালার্জি হয় ওইসব থেকে দূরে থাকা জরুরী। বারবার মাথা ধরা, সর্দি-কাশি, কাশতে কাশতে বমি ও জ্বর ইত্যাদি সাইনোসাইটিসের লক্ষণ। এসব রোগের মাত্রা বেড়ে গেলে প্রয়োজনে চিকিৎসকদের পরামর্শ নিয়ে এন্টিবায়োটিক খেতে হবে।

এসময়ে ঠান্ডা পানিয়, আইসক্রিম ইত্যাদি খাওয়া উচিত নয়। পাশাপাশি ঘর থেকে বের হলে অবশ্যই মাক্স ব্যবহারসহ সরকারের স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার জন্য তিনি সকলের প্রতি আহবান করেন।

শেয়ার করুন

ad image

সম্পর্কিত সংবাদ