MD. SAURAV HOSSAIN SIAM - (Narayanganj)
প্রকাশ ২৭/১২/২০২১ ০৩:৪৭পি এম

বাস-ট্রেন সংঘর্ষে ২ মামলা, তদন্তে কমিটি

বাস-ট্রেন সংঘর্ষে ২ মামলা, তদন্তে কমিটি
ad image
নারায়ণগঞ্জ শহরের এক নম্বর রেলগেট এলাকায় যাত্রীবাহী চলন্ত ট্রেন ও বাসের সংঘর্ষে হতাহতের ঘটনায় দু’টি অপমৃত্যুর মামলা হয়েছে। এদিকে সংঘর্ষের কারণ জানতে কাজ শুরু করেছে জেলা প্রশাসনের গঠিত তদন্ত কমিটি। সোমবার (২৭ ডিসেম্বর) বিকেলে ঘটনাস্থলে গিয়ে প্রত্যক্ষদর্শীদের সাথে কথা বলেছে কমিটির লোকজন।

রোববার সন্ধ্যা ৬টার দিকে এক নম্বর রেলগেটে লাইনের উপর থাকা আনন্দ পরিবহনের একটি বাসকে সজোরে ধাক্কা দেয় যাত্রীবাহী একটি চলন্ত ট্রেন। এই ঘটনায় প্রাণ হারান গাইবান্ধার মৃত যাত্রারাম দাসের ছেলে ভট্টরাম দাস (৫২), নারায়ণগঞ্জ বন্দর উপজেলার মৃত মনছুর আলীর ছেলে আবুল কালাম (৭৩), নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের ১৬ নম্বর ওয়ার্ডের ২নং বাবুরাইল বেপারীপাড়ার মোক্তার হোসেনের ছেলে রিফাত হোসেন (৯) ও বন্দর উপজেলার ঘাড়মোড়া গ্রামের মেজবাহ উদ্দিন (৬৫)। ঘটনাস্থলেই মারা যান ভট্টরাম ও আবুল কালাম। এই দুর্ঘটনায় এক পা বিচ্ছিন হয়ে যাওয়া শিশু রিফাত মারা যায় রাতে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। পরে সোমবার সকালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন মেজবাহ উদ্দিন।

চারজনের মৃত্যুতে দু’টি অপমৃত্যু মামলা হয়েছে বলে জানিয়েছেন নারায়ণগঞ্জ রেলওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ উপপরিদর্শক (এসআই) মোখলেসুর রহমান। তিনি জানান, তিনজনের মৃত্যুর ঘটনায় রোববার রাতে একটি এবং সকালে আরও এক মৃত্যুতে অপর আরেকটি মামলা হয়। দুই মামলারই বাদী পুলিশ।

এদিকে নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসক মোস্তাইন বিল্লাহর নির্দেশনায় পাঁচ সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মোসাম্মৎ রহিমা আক্তারকে প্রধান করে ওই কমিটির বাকি সদস্যরা পুলিশ, ফায়ার সার্ভিস, বিআরটিএ ও রেলওয়ের। ১৫ কার্যদিবসের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন দেওয়ার জন্য কমিটিকে নির্দেশ দেন ডিসি।

সোমবার বিকেলে ঘটনাস্থলে পরিদর্শন ও প্রত্যক্ষদর্শীদের সাক্ষাৎকার নিয়েছে তদন্ত কমিটি। কমিটির প্রধান অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মোসাম্মৎ রহিমা আক্তার বলেছেন, প্রাথমিকভাবে তদন্ত কমিটির কাজ শুরু হয়েছে। প্রত্যক্ষদর্শীদের স্বাক্ষাতকার গ্রহণ করেছি। দুর্ঘটনার প্রকৃত কারণ এবং কারও অবহেলা ছিল কিনা সেসব মাথায় রেখে তদন্ত চলবে। তদন্ত শেষ হলে ঘটনার প্রকৃত কারণ তুলে ধরা হবে এবং সরকারের উচ্চ পর্যায়ে সুপারিশ করা হবে যেন এমন দুর্ঘটনা আর না ঘটে।
এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন তদন্ত কমিটির সদস্য অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (‘ক’ সার্কেল) নাজমুল হাসান, নারায়ণগঞ্জ ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্সের উপসহকারী পরিচালক আব্দুল্লাহ আল আরেফিন, নারায়ণগঞ্জ রেলওয়ে স্টেশন মাস্টার কামরুল ইসলাম খান।

শেয়ার করুন

ad image

সম্পর্কিত সংবাদ