Md. Nayeem Uddin Khan( - (Dhaka))
প্রকাশ ৩০/১১/২০২১ ১২:২৩পি এম
দেখতে দেখতেই এসে গেলো শীত। শীত মানে আবহাওয়া পরিবর্তন, সেই সঙ্গে শরীরেরও এর প্রভাব পড়া। শীতে আমাদের শরীরে কিছু কিছু সমস্যা দেখা দেয়। এই সময় সর্দি-কাশির প্রবণতা বাড়ে। তাইতো ঋতু পরিবর্তনের সঙ্গে সঙ্গে আমাদের অধিক সচেতনতারও প্রয়োজন। বিশেষ করে আমাদের খাওয়া-দাওয়াতে একটু বাড়তি নজর দেয়া জরুরি। শীতকালে কিছু কিছু জিনিস রান্নায় ব্যবহার করা খুব গুরুত্বপূর্ণ। তার মধ্যে অন্যতম হলো রসুন।
রান্নায় প্রায়ই ব্যবহার হয় রসুন। কিন্তু শুধু স্বাদের জন্য নয়, শরীরের সুস্থ রাখতেও অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ রসুন। অ্যান্টিঅক্সিড্যান্টের মাত্রা অনেক বেশি থাকে রসুনে। এর সঙ্গে থাকে ভিটামিন বি এবং সি, ক্যালসিয়াম, ম্যাগনেশিয়াম, ফসফরাস, আয়রন। শীতকালে রান্নায় রসুন ব্যবহার করলে নানা ভাবে উপকার পেতে পারেন। কীভাবে? চলুন জেনে নেয়া যাক-

হাড়ের স্বাস্থ্যের জন্য প্রয়োজন:
নারীদের এস্ট্রোজেনের মাত্রা বাড়িয়ে হাড় ক্ষয়ে যাওয়ার প্রবণতা কমাতে পারে রসুন।

হৃদযন্ত্র সুস্থ রাখে:
বিপুল পরিমাণে অ্যান্টি-অক্সিড্যান্ট থাকার ফলে কোলেস্টেরলের মাত্রা কমানোর জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ হতে পারে রসুন।

ফুসফুসের সুস্থতার জন্য কার্যকর:
রসুন শ্বাসপ্রশ্বাসের সুবিধার জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। অনেক সময়েই শীতকালে সর্দির জন্য বা অতিরিক্ত ঠাণ্ডা লাগার ফলে ফুসফুসের কর্মক্ষমতা কমে যায়। সেই সময়ে রসুন নিয়মিত খেলে ফুসফুসের জন্য তা খুবই কার্যকরী হতে পারে।

সর্দি-কাশির জন্য উপযোগী:
শীতকালে গলাব্যথা, সর্দি-কাশি লেগেই থাকে। এই সব সমস্যা থেকে রেহাই দেওয়ার জন্য গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে পারে রসুন। সাইনাসের সমস্যা, জ্বর, ফ্লু সারানোর জন্য চিকিত্সকরা অনেক সময়েই রসুন খাওয়ার পরামর্শ দেন।

ওজন কমানোর ক্ষেত্রে সুবিধাজনক:
শীতকালের অলস জীবনযাপনের মধ্যে ওজনের দিকে নজর রাখা একটু কঠিন। এই ক্ষেত্রে আপনাকে চিন্তামুক্ত করতে পারে রসুন। অ্যান্টি-অক্সিড্যান্টের মাত্রা অনেক বেশি থাকায় বিপাকের ক্ষেত্রে অত্যন্ত কার্যকর ভূমিকা পালন করে রসুন। ওজন কমানোর জন্য রোজ সকালে কাঁচা রসুন আর মধু খেতেই পারেন।

শেয়ার করুন

ad image

সম্পর্কিত সংবাদ