সাইফুল বারী( - (Dhaka))
প্রকাশ ৩০/১১/২০২১ ১২:২৪পি এম
মারুফ সরকার ,বিনোদন প্রতিনিধিঃ অ্যাকশন কিং রুবেল তখন সিনেমার সুপারহিট হিরো। তার বিপরীতে কাজ করার জন্য মুখিয়ে থাকতেন যে কোন নায়িকা। তার একমাত্র কারণ এ নায়কের বিপরীতে সুযোগ পাওয়া মানেই সিনেমায় নিজের জায়গা পোক্ত করা। রুবেলের ‘জিদ্দী সন্তান’ সিনেমাটি ২০০০ সালে মুক্তি পেলো। রূপালী পর্দায় দর্শক শাহনূর নামে নতুন এক নায়িকাকে দেখতে পেলেন। তার সৌভাগ্যই বলতে হবে, দর্শকরা প্রথম সিনেমাই গ্রহণ করলেন।

২০০০ থেকে ২০২১ সাল পর্যন্ত সমানতালে এই অভিনেত্রী বড় পর্দায়, টেলিভিশনে অভিনয় করে চলেছেন। ফোবানা সম্মেলনেসহ বিভিন্ন শোতে অংশ নিতে বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্রে রয়েছেন শাহনুর। মুঠোফোনে মানবজমিনের সঙ্গে কথা হল তার। কেমন আছেন? সেখানে সময় কেমন কাটছে? শাহনূর বলেন, বেশ ভালো আছি। খুব ভালো সময় কাটছে।

প্রতিবারই বাঙালি কমিউনিটির আমেরিকায় সবচেয়ে বড় সাংস্কৃতিক সংগঠন আয়োজিত ফোবানায় আমন্ত্রিত হই। এবারও তাদের আমন্ত্রণেই এসেছি। খুব ভালো শো হয়েছে। আমেরিকায়ও তো বোধহয় কাজ করা হলো বিজ্ঞাপনের? এ নায়িকা বলেন, হ্যাঁ। নতুন একটি টিভিসি করলাম এখানে। ‘খলিল বিরিয়ানী’ রেস্টুরেন্টের বিজ্ঞাপন। এটি বর্তমানে এখানে বিভিন্ন চ্যানেলে প্রচার হচ্ছে। সিনেমার কি অবস্থা? শাহনূর বলেন, সিনেমার কাজ নিয়ে টানা ব্যস্ততা গেছে দেশে থাকতে। আমার অভিনীত বেশ কিছু সিনেমার কাজ রানিং রয়েছে। তার মধ্যে রয়েছে ‘প্রেম প্রীতির বন্ধন’, ‘বেলা অবেলা’ ‘বসন্ত বিকেল’সহ কয়েকটি ছবি।

এছাড়া সরকারি অনুদানের ছবি ‘কাকতাড়ুয়া’তে কাজ করেছি ফারুক হোসেন পাঠানের পরিচালনায়। ‘কে আমার শত্রু’ ও ‘কাঠগড়ায় শরৎচন্দ্র’ সিনেমায়ও কাজ করেছি। নায়ক মান্নার সঙ্গে আপনার একটি ছবিও তো আসছে? এ নায়িকা বলেন, প্রায় একযুগ পর সেন্সর পেয়েছে ‘জীবন যন্ত্রণা’ সিনেমাটি। এই সিনেমা এই জন্যই উল্লেখযোগ্য যে, প্রয়াত সুপার স্টার মান্না ভাইয়ের অভিনীত শেষ ছবি।

অচিরেই দর্শক তাদের প্রিয় অভিনেতা মান্নার অভিনয় উপভোগ করতে পারবেন। ছোটপর্দায় কাজের কি অবস্থা? শাহনূরের উত্তর- ছোট পর্দায় কাজ করেছি ‘জমিদার বাড়ি’ ও ‘চিটার’ নাটকে। শাহনূর ২০০৩ সালে ‘বউ শাশুড়ীর যুদ্ধ’ সিনেমায় নেগেটিভ চরিত্রে অভিনয় করে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারও পেয়েছেন। দীর্ঘ ২১ বছর ধরে কাজ করছেন। এই পথচলাটা কেমন ছিলো? এ চিত্রনায়িকা বলেন, ভালো-খারাপ সব ধরনের অভিজ্ঞতা আছে। তবে চলচ্চিত্র আমাকে অনেক দিয়েছে। মানুষের ভালোবাসা সেই শুরু থেকে এখনও পাচ্ছি। এর চেয়ে বড় কোনো প্রাপ্তি নেই।

শেয়ার করুন

ad image

সম্পর্কিত সংবাদ