Feedback

জাতীয়

সাবেক প্রধান বিচারপতি সিনহাসহ ১১ জনের বিচার শুরু

সাবেক প্রধান বিচারপতি সিনহাসহ ১১ জনের বিচার শুরু
August 13
03:29pm
2020
Younus Ali
Trishal, Mymensingh:
Eye News BD App PlayStore

ফারমার্স ব্যাংক (বর্তমানে পদ্মা ব্যাংক) থেকে চার কোটি টাকা ঋণ নিয়ে আত্মসাতের অভিযোগে করা মামলায় সাবেক প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার (এস কে) সিনহাসহ ১১ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেছেন আদালত। অভিযোগ গঠনের ফলে এ মামলার আনুষ্ঠানিক বিচার শুরু হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (১৩ আগস্ট) ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৪-এর বিচারক শেখ নাজমুল আলম আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেন।

এর আগে ২০ ফেব্রুয়ারি ঢাকা মহানগর দায়রা জজ কে এম ইমরুল কায়েশ মামলাটি ঢাকার বিশেষ জজ-৪-এ বদলির আদেশ দেন।

গত ৫ জানুয়ারি এস কে সিনহাসহ ১১ জনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন আদালত। ১০ ডিসেম্বর আদালতে এ চার্জশিট জমা দেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা দুদকের পরিচালক বেনজীর আহমেদ। এর আগে ৪ ডিসেম্বর কমিশনের সভায় ১১ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র (চার্জশিট) অনুমোদন দেয়া হয়।

মামলার অন্য আসামিরা হলেন-ফারমার্স ব্যাংকের সাবেক এমডি এ কে এম শামীম, সাবেক এসইভিপি (মাধ্যমিক শিক্ষা উন্নয়ন কর্মসূচি) গাজী সালাহউদ্দিন, ফার্স্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট স্বপন কুমার রায়, ফার্স্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট সাফিউদ্দিন আসকারী, সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট মো. জিয়াউদ্দিন আহমেদ, ভাইস প্রেসিডেন্ট মো. লুৎফুল হক, টাঙ্গাইলের বাসিন্দা মো. শাহজাহান, একই এলাকার নিরঞ্জন চন্দ্র সাহা, রনজিৎ চন্দ্র সাহা ও তার স্ত্রী সান্ত্রী রায়।

এ মামলা থেকে মৃত হিসেবে প্রমাণ মেলায় চার্জশিট থেকে এক আসামির নাম বাদ দেয়া হয়েছে। নতুন করে একজনের নাম অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে।

গত বছরের ১০ জুলাই দুদকের সমন্বিত জেলা কার্যালয় ঢাকায় মামলাটি করা হয়। দুদক পরিচালক সৈয়দ ইকবাল হোসেন এ মামলার বাদী। ফারমার্স ব্যাংকের দুটি হিসাব থেকে চার কোটি টাকা ঋণ নেয়ার ক্ষেত্রে জালিয়াতির ‘প্রমাণ’ পাওয়ার তথ্য গত বছরের অক্টোবরে সাংবাদিকদের জানিয়েছিলেন দুদক চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ।

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, ফারমার্স ব্যাংকের গুলশান শাখা থেকে চার কোটি টাকা ঋণ পেয়েছিলেন কথিত ব্যবসায়ী শাহজাহান ও নিরঞ্জন। সেই টাকা রনজিৎ চন্দ্র সাহার হাত ঘুরে বিচারপতি এস কে সিনহার বাড়ি বিক্রির টাকা হিসেবে দেখিয়ে তার ব্যাংক হিসাবে ঢুকেছে বলে অভিযোগ পাওয়ার পর তদন্তে নামে দুদক।

দুদক জানায়, সিনহার বিরুদ্ধে গত বছরের জুলাই মাসে মামলা করে সংস্থাটি। মামলায় সাবেক ফারমার্স ব্যাংক (বর্তমানে পদ্মা ব্যাংক) থেকে ভুয়া তথ্য দিয়ে অন্যের নামে চার কোটি টাকার ঋণ করে পরে তা এস কে সিনহার ব্যাংক হিসাবে স্থানান্তর করার অভিযোগ আনা হয়।

অভিযোগে বলা হয়, সেই ব্যাংক হিসাব থেকে পরবর্তী সময়ে টাকা স্থানান্তর ও রূপান্তরের মাধ্যমে পাচার করা হয়।

দুদক বলছে, মামলার তদন্তে অভিযোগের সত্যতা পাওয়া গেছে। তাই সংশ্লিষ্ট তদন্ত কর্মকর্তার সুপারিশের পরিপ্রেক্ষিতে বর্তমানে বিদেশে অবস্থারত এস কে সিনহাসহ ১১ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র অনুমোদন দেয়া হয়। তদন্ত শেষে নতুন করে আসামি হয়েছেন ফারমার্স ব্যাংকের নিরীক্ষা কমিটির সাবেক চেয়ারম্যান মাহবুবুল হক চিশতী (বাবুল চিশতী)।

উল্লেখ্য, সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের রায় এবং কিছু পর্যবেক্ষণের কারণে তোপের মুখে ২০১৭ সালের অক্টোবরের শুরুতে ছুটিতে যান তৎকালীন প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা। পরে বিদেশ থেকেই তিনি পদত্যাগপত্র পাঠিয়ে দেন।

All News Report

Add Rating:

0

সম্পর্কিত সংবাদ

ট্রেন্ডিং

করোনা শেষ না হওয়া পর্যন্ত মেস ভাড়া মওকুফ চায় হাবিপ্রবি শিক্ষার্থীরা

করোনা শেষ না হওয়া পর্যন্ত মেস ভাড়া মওকুফ চায় হাবিপ্রবি শিক্ষার্থীরা

ভাস্কর্য নির্মাণ সম্পর্কে যা বললেন আজহারী

ভাস্কর্য নির্মাণ সম্পর্কে যা বললেন আজহারী

"গৌরির নাম বদলে আয়েশা, পরতে হবে বোরখা"-স্ত্রীকে বললেন শাহরুখ

"গৌরির নাম বদলে আয়েশা, পরতে হবে বোরখা"-স্ত্রীকে বললেন শাহরুখ

২৫ পৌরসভায় আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেলেন যারা

২৫ পৌরসভায় আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেলেন যারা

মসজিদের কক্ষে প্রেমিকার সঙ্গে অন্তরঙ্গ মুহূর্তে ধরা ইমাম

মসজিদের কক্ষে প্রেমিকার সঙ্গে অন্তরঙ্গ মুহূর্তে ধরা ইমাম

১৪৪ তলা বিল্ডিং গুলিয়ে ফেলা হলো মুহূর্তের মধ্যে

১৪৪ তলা বিল্ডিং গুলিয়ে ফেলা হলো মুহূর্তের মধ্যে

বাগেরহাটের মোড়েলগঞ্জের আলোচিত শিশু সানজিদা হত্যার দায় স্বীকার করলো গর্ভধারিনী মা

বাগেরহাটের মোড়েলগঞ্জের আলোচিত শিশু সানজিদা হত্যার দায় স্বীকার করলো গর্ভধারিনী মা

এবার 'বাবু খাইছো' গান গেয়ে আলোচনায় হিরো আলম

এবার 'বাবু খাইছো' গান গেয়ে আলোচনায় হিরো আলম

চেতনার ভিসুভিয়াস ! তানিয়া সুলতানা হ্যাপি

চেতনার ভিসুভিয়াস ! তানিয়া সুলতানা হ্যাপি

মৃত্যুকে ভয় না করে সেনাদের যুদ্ধ জয়ের প্রস্তুতি নিতে বললেন শি

মৃত্যুকে ভয় না করে সেনাদের যুদ্ধ জয়ের প্রস্তুতি নিতে বললেন শি

ইরানের শীর্ষ পরমাণু বিজ্ঞানী আততায়ীর হাতে নিহত

ইরানের শীর্ষ পরমাণু বিজ্ঞানী আততায়ীর হাতে নিহত

জয়পুরহাট জেলা আইনজীবী সমিতি নির্বাচনে সভাপতি আ’লীগের, সম্পাদক বিএনপির

জয়পুরহাট জেলা আইনজীবী সমিতি নির্বাচনে সভাপতি আ’লীগের, সম্পাদক বিএনপির

সন্তান রেখে উধাও প্রবাসীর স্ত্রী, শ্বশুর-শাশুড়িকে হয়রানি

সন্তান রেখে উধাও প্রবাসীর স্ত্রী, শ্বশুর-শাশুড়িকে হয়রানি

৭১ টিভি চ্যানেলে ৫৬ টি বিদ্যালয় নিয়ে সংবাদ প্রকাশের প্রতিবাদে বরগুনায় শিক্ষকদের মানববন্ধন

৭১ টিভি চ্যানেলে ৫৬ টি বিদ্যালয় নিয়ে সংবাদ প্রকাশের প্রতিবাদে বরগুনায় শিক্ষকদের মানববন্ধন

শীতের সকালেও উষ্ণতা ছড়াচ্ছেন মধুমিতা

শীতের সকালেও উষ্ণতা ছড়াচ্ছেন মধুমিতা

সর্বশেষ

ভারতের চিন্তা সেই স্মিথই, ‘গ্রিপ’ পাল্টাতেই সফল

ভারতের চিন্তা সেই স্মিথই, ‘গ্রিপ’ পাল্টাতেই সফল

শুধু ওষুধি গাছ দিয়ে ৫০০ রোগ সারাতে পারেন এই নারী

শুধু ওষুধি গাছ দিয়ে ৫০০ রোগ সারাতে পারেন এই নারী

সামাজিক উৎসব নিষিদ্ধ হতে পারে ব্রিটেনে, আগামী ৫ মাস

সামাজিক উৎসব নিষিদ্ধ হতে পারে ব্রিটেনে, আগামী ৫ মাস

বঙ্গবন্ধু রেল সেতুর ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করলেন প্রধানমন্ত্রী

বঙ্গবন্ধু রেল সেতুর ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করলেন প্রধানমন্ত্রী

সংক্রমণের সব রেকর্ড ভাঙল আমেরিকা, ২৪ ঘণ্টায় ২ লক্ষ ছাড়াল আক্রান্ত

সংক্রমণের সব রেকর্ড ভাঙল আমেরিকা, ২৪ ঘণ্টায় ২ লক্ষ ছাড়াল আক্রান্ত

সৈয়দপুর পৌরসভা নির্বাচনের আগে ভাগেই প্রচারণার আমেজ

সৈয়দপুর পৌরসভা নির্বাচনের আগে ভাগেই প্রচারণার আমেজ

পানিতে সারা-বরুণের ঠোঁটঠাসা চুমু, "কুলি নম্বর ১"এর ট্রেলার নিয়ে হইচই

পানিতে সারা-বরুণের ঠোঁটঠাসা চুমু, "কুলি নম্বর ১"এর ট্রেলার নিয়ে হইচই

২০২০ সালে বিচ্ছেদ হলো যাদের

২০২০ সালে বিচ্ছেদ হলো যাদের

কালীগঞ্জ উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের ত্রিবার্ষিক সম্মেলন

কালীগঞ্জ উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের ত্রিবার্ষিক সম্মেলন

ভাস্কর্য বিতর্কে কঠোর অবস্থানে সরকার

ভাস্কর্য বিতর্কে কঠোর অবস্থানে সরকার

দেশের সবচেয়ে বড় রেলসেতু নির্মাণ কাজ শুরু হচ্ছে আজ থেকে

দেশের সবচেয়ে বড় রেলসেতু নির্মাণ কাজ শুরু হচ্ছে আজ থেকে

চাটখিল উপজেলা বিএনপি'র সাধারণ সম্পাদকের করোনা

চাটখিল উপজেলা বিএনপি'র সাধারণ সম্পাদকের করোনা

দেশে বিশ্ববিদ্যালয় নাকি কারিগরি শিক্ষার প্রসার প্রয়োজন বেশি?

দেশে বিশ্ববিদ্যালয় নাকি কারিগরি শিক্ষার প্রসার প্রয়োজন বেশি?

ধর্ষিত বউ- ১০ম পর্ব

ধর্ষিত বউ- ১০ম পর্ব

রোহিঙ্গা গণহত্যা, মামলা লড়তে ৫ লাখ ডলার দিল বাংলাদেশ

রোহিঙ্গা গণহত্যা, মামলা লড়তে ৫ লাখ ডলার দিল বাংলাদেশ