Feedback

কোভিড-১৯, সিলেট

মানা হচ্ছে না সামাজিক দূরত্ব, মাস্ক ব্যবহার না করা অপরাধ : স্বাস্থ্য বিভাগ সিলেট অঞ্চলে মাস্ক ব্যবহারে উদাসীনতা

মানা হচ্ছে না সামাজিক দূরত্ব, মাস্ক ব্যবহার না করা অপরাধ : স্বাস্থ্য বিভাগ  সিলেট অঞ্চলে মাস্ক ব্যবহারে উদাসীনতা
August 08
11:29am
2020
Md. Sorif Uddin
Zakiganj, Sylhet:
Eye News BD App PlayStore

করোনা মহামারী থেকে রক্ষা পেতে সরকারি স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার ব্যাপারে বার বার তাগাদা দেয়া হলেও এর প্রতি সিলেটের সর্বত্র উদাসীনতা পরিলক্ষিত হচ্ছে। পবিত্র ঈদুল আযহার পর থেকে মানুষের মধ্যে মাস্ক ব্যবহারের প্রবণতা অনেকটা কমে গেছে। পাশাপাশি সামাজিক দূরত্ব রক্ষারও কোন বালাই নেই। পর্যটন স্পট, মার্কেট, বিপণী বিতান, হাট-বাজার সর্বত্র মাস্ক ছাড়াই চলছে মানুষের অবাধ যাতায়াত। অনেক মসজিদেও এখন মাস্ক ব্যবহারের পাশাপাশি সামাজিক দূরত্ব রক্ষার বিষয়ে গুরুত্ব দেয়া হচ্ছে না। স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা বলছেন, মাস্ক ব্যবহার না করা একটি অপরাধ। তাই স্বাস্থ্যবিধি মানার ক্ষেত্রে প্রচার প্রচারণা অব্যাহত রাখা এবং মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে মানুষকে স্বাস্থ্য বিধি মানতে বাধ্য করার ওপর জোর দেয়া হয়েছে স্বাস্থ্য বিভাগের পক্ষ থেকে।


স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্য সেবা বিভাগের মাস্ক ব্যবহারের নির্দেশনা অনুযায়ী, হাসপাতালসহ সকল সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠান, মসজিদ, মন্দির, গীর্জাসহ সকল ধর্মীয় উপাসনালয়, হাট-বাজার মার্কেটসহ জনসমাগম স্থানে সকলের মাস্ক ব্যবহার বাধ্যতামূলক। এমনকি হকার, রিকসা ও ভ্যান চালক, হোটেল-রেস্টুরেন্টের কর্মরত ব্যক্তি এবং গণপরিবহনের চালক ও সহকারীসহ সকল প্রকার সামাজিক অনুষ্ঠানে আগত ব্যক্তিদের মাস্ক পরিধান নিশ্চিত করতে বলা হয়েছে।


সংশ্লিষ্টদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, করোনা ভাইরাসের ব্যাপক সংক্রমণের মধ্যেও পবিত্র ঈদুল আযহার পূর্ব থেকেই মানুষের মধ্যে ব্যাপক পরিবর্তন চলে আসে। ঈদুল ফিতরে মানুষ কিছুটা স্বাস্থ্যবিধি মেনে বের হলেও এবার ঈদুল আযহার আর তার তোয়াক্কা না করেই মার্কেটসহ পশুর হাটে নামে মানুষের ঢল। ঈদের পরেও মানুষের মধ্যে সেই প্রবণতা লক্ষ্য করা যাচ্ছে। কেবল গ্রাম নয়, শহরেও মাস্ক না পরেই মানুষ দল বেধে ঘুরে বেড়াচ্ছে এবং বিভিন্ন সামাজিক অনুষ্ঠানে অংশ নিচ্ছেন। পর্যটন স্পটগুলোতে একসাথে ঘুরে বেড়াচ্ছেন সবাই। বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে সেবা নিতে অনেকে মাস্ক ছাড়াই যাচ্ছেন। এদিকে, মসজিদ গুলোতে নামাজ আদায়ে সামাজিক দূরত্ব মেনে চলা এবং মাস্ক ব্যবহারের ক্ষেত্রে গুরুত্ব হ্রাস পেয়েছে।


গতকাল শুক্রবার সরেজমিনে নগরীর একটি পাড়ার মসজিদে দেখা যায়, মসজিদের অধিকাংশ মুসল্লীই মাস্ক ছাড়া। ওই মসজিদের জুমার নামাজের একটি কাতার গুনে দেখা যায়, ২৩ জন মুসল্লির মধ্যে মাত্র ৭ জন মাস্ক পড়েছেন। বাকি ১৬ জনই মাস্ক ছাড়া। এর মধ্যে অনেক বয়স্ক লোকও মাস্ক ছাড়া মসজিদে এসেছেন। অবশ্য, ওই মসজিদে সামাজিক দূরত্ব মেনে জামাত আদায় করা হয়েছে।


সরেজমিনে নগরীর বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা যায়, অনেকেই এখন মাস্ক ছাড়াই চলাচল করছেন। মাস্ক ছাড়াই সড়কের পাশে দাঁড়িয়েই স্বাভাবিকভাবেই চলছে গল্পগুজব। সবজি ও ফল বিক্রেতা, রেস্টুরেন্টের কর্মচারীদের আগে মাস্ক ব্যবহর করতে দেখা গেলেও এখন অনেককেই মাস্ক ছাড়াই দেখা যাচ্ছে। অনেক প্রতিষ্ঠানে মাস্ক ছাড়া প্রবেশ নিষেধ লেখা থাকলেও মাস্ক ছাড়াই কেউ কেউ প্রবেশ করছেন। এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠান কর্মচারীর সাথে কথা বললে তিনি বলেন, মাস্ক ছাড়া যারা আসেন তাদের তারা বলেন মাস্ক ছাড়া চলবে না। তখন তিনি বলেন, মাস্ক আনতে ভুলে গেছেন। ব্যবসা প্রতিষ্ঠান তাই ক্রেতাকে বেশি চাপ দেয়া যায় না। একটি সেবা প্রদানকারী প্রতিষ্ঠানে গিয়ে দেখা যায়, লাইনে ২৩ জন দাঁড়িয়ে আছেন। তাদের মধ্যে মাত্র ৭ জনকে পাওয়া যায় যারা মাস্ক পরেছেন।


সরেজমিনে আরো দেখা যায়, শহরতলী ও গ্রামীণ এলাকায় মাস্ক ও সামাজিক দূরত্ব রাখার বিষয়টি এখন কোন আলোচনার মধ্যেই নেই। সবাই স্বাভাবিকভাবেই তাদের কাজকর্ম করছেন। মাস্ক বা সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার প্রতি তাদের কোন আগ্রহ নেই এবং এসব নিয়ে কেউ কোন কথাও বলেন না। যারা সামাজিক দূরত্ব বা মাস্ক ব্যবহারের জন্য বলেন বরং তারাই লজ্জা পান বলে জানান গ্রামের এক তরুণ। শহরতলীর জালালাবাদ থানার মইয়ারচর এলাকার গ্রামের মসজিদের ইমাম বলেন, মাস্ক ব্যবহার ও সামাজিক দূরত্বের কথা বলার মতো কোন পরিবেশই নেই। গ্রামের মানুষ এসব বুঝেন না।


স্বাস্থ্য সংশ্লিষ্টরা জানান, দেশে করোনা সংক্রমণ এবং মৃত্যুর হার কমছে না। যদি সতর্ক না হই ; তবে সংক্রমণের বড় ঝুঁকির মধ্যে পড়ে যাব আমরা।


একাধিক সূত্র জানায়, করোনা সংক্রমণের শুরুতে স্বাস্থ্যবিধি না মানায় জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে বেশ কয়েকটি মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করা হয়। এমনকি ক্ষেত্রে বিশেষে জরিমানাও করা হয়। কিন্তু, সাম্প্রতিক কালে মোবাইল কোর্টের কার্যক্রম কিছুটা শিথিল হওয়ায় মানুষের মধ্যে মাস্ক ও সামাজিক দূরত্ব রক্ষার ব্যাপারে উদাসীনতা চলে এসেছে।


সিলেট সিভিল সার্জন অফিসের সিনিয়র স্বাস্থ্য শিক্ষা কর্মকর্তা সুজন বনিক মাস্ক ব্যবহারের কোন বিকল্প নেই উল্লেখ করে বলেন, নিজের সুরক্ষার জন্য মাস্ক। যিনি মাস্ক ব্যবহার করছেন না তিনি ও তার পরিবারই প্রথমে ঝুঁকির মুখে পড়বেন। মাস্ক ব্যবহার, একটু দূরত্ব রেখে চলা এবং সাবান দিয়ে হাত ধোয়ার বিষয়টি আমরা পরস্পরের সাথে বিনিময় করবো। একজন অপরজনকে বলবো বা স্মরণ করিয়ে দেব। যাতে বিষয়টি সামাজিক আন্দোলনে পরিণত হয়। একই সাথে শাস্তি-জরিমানা করে মানুষকে বাধ্য করতে হবে।
স্বাস্থ্য বিভাগ সিলেটের সহকারী পরিচালক (রোগ নিয়ন্ত্রণ) ডা. আনিসুর রহমান বলেন, ঈদের পর থেকে মানুষের মধ্যে মাস্ক ব্যবহার না করা ও দূরত্ব বজায় না রাখার প্রবণতা বৃদ্ধি পেয়েছে। মানুষ যাতে মাস্ক ব্যবহার করেন; সেজন্য প্রচার প্রচারণা অব্যাহত রাখা এবং মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে মাস্ক ব্যবহারে বাধ্য করতে হবে।


তিনি বলেন, জনসাধারণকে এটা বুঝতে হবে মাস্ক ব্যবহার না করা একটি অপরাধ। একই সাথে মাস্ক ব্যবহার না করা নিজের, পরিবারের এবং সমাজের জন্য মৃত্যুঝুঁকি সৃষ্টি করবে। তাই একটু অস্বস্তি হলেও ধৈর্য ধরে সবাইকে মাস্ক ব্যবহার করার পরামর্শ দেন এ কর্মকর্তা।

All News Report

সম্পর্কিত সংবাদ

ট্রেন্ডিং

সৌদির ভিসা রিনিউ আবেদনে ১৮ এজেন্সির তালিকা প্রকাশ

সৌদির ভিসা রিনিউ আবেদনে ১৮ এজেন্সির তালিকা প্রকাশ

হাবিপ্রবির হিসাব শাখার পরিচালকের রদবদল

হাবিপ্রবির হিসাব শাখার পরিচালকের রদবদল

শিক্ষক নেতৃত্বের দক্ষতা উন্নয়ন

শিক্ষক নেতৃত্বের দক্ষতা উন্নয়ন

নারায়ণগঞ্জে ১৪৪ ধারা

নারায়ণগঞ্জে ১৪৪ ধারা

বাংলাদেশের রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম কেন? প্রশ্ন আ.লীগ নেতার

বাংলাদেশের রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম কেন? প্রশ্ন আ.লীগ নেতার

জামালপুরে হত্যা মামলায় দুভাইয়ের মৃত্যুদণ্ড, সাতজনের যাবজ্জীবন

জামালপুরে হত্যা মামলায় দুভাইয়ের মৃত্যুদণ্ড, সাতজনের যাবজ্জীবন

বাংলাদেশের অ্যাটর্নি জেনারেল মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রী শোক প্রকাশ

বাংলাদেশের অ্যাটর্নি জেনারেল মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রী শোক প্রকাশ

ছেলের জন্মদিনে অপু বিশ্বাসের আবেগঘন স্ট্যাটাস

ছেলের জন্মদিনে অপু বিশ্বাসের আবেগঘন স্ট্যাটাস

বাড়ছে ছুটির মেয়াদ

বাড়ছে ছুটির মেয়াদ

ইডেনের অধ্যক্ষ হত্যা: আসামিরা নিজেদের নির্দোষ বলে অঝরে কাঁদলেন!

ইডেনের অধ্যক্ষ হত্যা: আসামিরা নিজেদের নির্দোষ বলে অঝরে কাঁদলেন!

সারারাত মারধরের পর সকালে কোদাল দিয়ে মাথা ন্যাড়া

সারারাত মারধরের পর সকালে কোদাল দিয়ে মাথা ন্যাড়া

করোনায় অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলমের মৃত্যু

করোনায় অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলমের মৃত্যু

অস্ত্র মামলায় পাপিয়া দম্পতির রায় ১২  অক্টোবর

অস্ত্র মামলায় পাপিয়া দম্পতির রায় ১২ অক্টোবর

বাংলাদেশ এয়ারলাইনসের ৬ রুটের ফ্লাইট চলাচল আগামী ২৪ অক্টোবর পর্যন্ত বাতিল

বাংলাদেশ এয়ারলাইনসের ৬ রুটের ফ্লাইট চলাচল আগামী ২৪ অক্টোবর পর্যন্ত বাতিল

বাংলাদেশের করোনায় অক্সফোর্ডের আশঙ্কা ভুল প্রমাণিত: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

বাংলাদেশের করোনায় অক্সফোর্ডের আশঙ্কা ভুল প্রমাণিত: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

সর্বশেষ

রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদের সাথে রিভা গাঙ্গুলী দাসের বিদায়ী সাক্ষাৎ

রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদের সাথে রিভা গাঙ্গুলী দাসের বিদায়ী সাক্ষাৎ

আমরা মাল মাছ সবই খাই---স্বস্তিকা

আমরা মাল মাছ সবই খাই---স্বস্তিকা

অনলাইন নিউজ পোর্টাল নিবন্ধনের কার্যক্রম দ্রুততার সাথে সম্পন্ন করার সুপারিশ

অনলাইন নিউজ পোর্টাল নিবন্ধনের কার্যক্রম দ্রুততার সাথে সম্পন্ন করার সুপারিশ

রাজশাহী সিটি মেয়রের উদ্যোগে প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর ১০৯টি পরিবার পেয়েছে পাকা বাড়ি

রাজশাহী সিটি মেয়রের উদ্যোগে প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর ১০৯টি পরিবার পেয়েছে পাকা বাড়ি

প্রাচীন যুগে যেভাবে জন্মনিয়ন্ত্রণ করা হতো

প্রাচীন যুগে যেভাবে জন্মনিয়ন্ত্রণ করা হতো

অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলমের মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতির শোক প্রকাশ

অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলমের মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতির শোক প্রকাশ

ড. কামাল হোসেন ও আসিফ নজরুলকে ঢাবি এলাকায়  অবা‌ঞ্ছিত ঘোষণা:

ড. কামাল হোসেন ও আসিফ নজরুলকে ঢাবি এলাকায় অবা‌ঞ্ছিত ঘোষণা:

প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন উপলক্ষে গাজীপুরে এক হাজার গাছ বিতরণ

প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন উপলক্ষে গাজীপুরে এক হাজার গাছ বিতরণ

গরীবের হকের আট টন চাল সহ আটক ৩

গরীবের হকের আট টন চাল সহ আটক ৩

নোবেল পুরস্কারের অর্থ, এবার থেকে নোবেলজয়ীরা পাবেন অতিরিক্ত ১,১০,০০০ মার্কিন ডলার

নোবেল পুরস্কারের অর্থ, এবার থেকে নোবেলজয়ীরা পাবেন অতিরিক্ত ১,১০,০০০ মার্কিন ডলার

অনলাইন প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করা সহজ : শিক্ষামন্ত্রী

অনলাইন প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করা সহজ : শিক্ষামন্ত্রী

টঙ্গীতে আওয়ামী লীগ নেতার বাড়িতে ককটেল হামলার প্রতিবাদ মানববন্ধন

টঙ্গীতে আওয়ামী লীগ নেতার বাড়িতে ককটেল হামলার প্রতিবাদ মানববন্ধন

প্রধান বিচারপতির শোক অ্যাটর্নি জেনারেলের মৃত্যুতে

প্রধান বিচারপতির শোক অ্যাটর্নি জেনারেলের মৃত্যুতে

বাংলাদেশ ছাত্রলীগের ঢাবি সভাপতি সনজিত চন্দ্র দাসের বক্তব্যে সন্ত্রাসবাদের বহিঃপ্রকাশ

বাংলাদেশ ছাত্রলীগের ঢাবি সভাপতি সনজিত চন্দ্র দাসের বক্তব্যে সন্ত্রাসবাদের বহিঃপ্রকাশ

১ম শ্রেণির শিশুকে ধর্ষণ

১ম শ্রেণির শিশুকে ধর্ষণ