Feedback

জেলার খবর, ঝিনাইদহ, ভ্রমণ

দেখে আসুন ঝিনাইদহের ঐতিহাসিক বারো আওলিয়ার বারোবাজার

দেখে  আসুন ঝিনাইদহের ঐতিহাসিক বারো আওলিয়ার বারোবাজার
August 07
02:12pm
2020
Shahajhan Ali Bipas
Jhenaidha, Jhenaidah:
Eye News BD App PlayStore

বারো আওলিয়ার বারোবাজার ঝিনাইদহ জেলার কালীগঞ্জ শহর থেকে ১২ কিলোমিটার দক্ষিণে। ঝিনাইদহ জেলা শহর থেকে ৩০ মাইল দক্ষিণে ঢাকা খুলনা মহাসড়কের দুই ধারে শত শত পুকুর ও দিঘির স্বচ্ছ সলিলার ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র ঢেউ,বুড়ি ভৈরব নদীর তীরে প্রাকৃতিক সৌন্দর্যমতি  ঐতিহাসিক মসজিদ পরিবেষ্টিত এই বারবাজার। ১২ জন আওলিয়ার নামানুসারে এখানকার নামকরন করা হয় বারোবাজার। আওলিয়ারা হলেন এনায়েত খাঁ, আবদাল খাঁ, দৌলত খাঁ, রহমত খাঁ,শমসের খাঁ, মুরাদ খাঁ, হৈবত খাঁ,নিয়ামত খাঁ, সৈয়ধ খাঁ, বেলায়েত খাঁ ও শাহাদত খাঁ। এসব আওলিয়ার নামে শুধু বারোবাজার নয় পাশ্ববর্তী অনেক গ্রামগঞ্জের নাম আওলিয়্‌দের নামানুসারে রাখা হয়েছে।


কিংবদনি- আছে বঙ্গ বিজয়ী বীল ইখতিয়ার উদ্দিন মোহাম্মদ বখতিয়ার খিলজি নদীয়া দখলের পর নদীয়র দক্ষিন বা দক্ষিণ পূর্বে বিস-ীর্ণ অঞ্চলের দিকে মনোযোগী না হয়ে উত্তর দিকে বেশি আকৃষ্ট হয়ে পড়ে। ফলে তার বিজিত রাজ্য উত্তরদিকে প্রশস- হতে থাকে। পরিশেষে সামছুদ্দিন ইলিয়াস শাহের পৌত্র নাসির উদ্দিন মাহমুদ শাহ(১৯৪২) সালে এর শাসনামলে যশোর ও খুলনার কিংবদ তার রাজ্যভুত হয়। ওই অঞ্চলে বিজয়ের গৌরব অর্জণ করেন বৃহত্তর খুলনা জেলার বাগেরহাটের পরশমণি শ্রেষ্ট আওলিয়ার হযরত খান জাহান আলী।


তিনি ১৬৫৯ সালে (৮৬৩) হিজরী ২৩ অক্টোবর ইহধাম ত্যাগ করেন। তিনি এক সময় নিজের আত্মরক্ষার্থে একটি ক্ষুদ্র সেনাবাহিনীর অধিনায়খ হয়ে কুষ্টিয়া জেলার দৌলতগঞ্জ প্রবেশ করেন। সেখান থেকে বৃহত্তর যশোর জেলার কোটচাঁদপুর উপজেলার হাকিমপুর হয়ে বারবাজার অভিমুখে রওনা দেন। পথিমধ্যে জনসাধারনের পানীয় জলের তীব্র কষ্ট দেখে তিনি এ অঞ্চলে অগনিত দিঘি আর পুকুর খনন করেন। কিংবদনি- আছে,একই রাতে এ সব জলাশয় খনন করা হয়েছিল। ফলে বারবাজার অঞ্চলে ৮৪ একর পুকুর ও দিঘি এখনও বিদ্যমান।


এ অঞ্চলে ১৮টি উল্লেখযোগ্য দিঘির নামানুসারে জানা যায়, পীরপুকুর ৪ একর, গোড়ার পুকুর ৫ একর, সওদাগর দিঘি ১১ একর, সানাইদার পুকুর ৩ একর, সাতপীরের পুকুর ৩ একর, ভাইবোনের দিঘি ৪ একর, আনন্দ ২ একর, গলাকাটা দিঘি ৪ একর, জোড়াবাংলা দিঘি ৩ একর, চোরাগদা দিঘি ৪ একর,মাতারানী দিঘি ৮ একর, নুনো গোলা দিঘি ৩ একর, কানাই দিঘি ৩ একর, পাচ পীরের দিঘি ৩ একর, মনোহর দিঘি ৩ একর, আদিনা দিঘি ৩ একর, শ্রীরাম রাজার দিঘি ১০ একর ও বেড় দিঘি ৮ একর। সর্বমোট ৮৪ একর দিঘি।


 এক সময় হযরত খানজাহান আলী বেলাট দৌলতপুরের পূর্ব দিকে বাদুগাছা গ্রামের প্রভাবশালী শ্রীরাম রাজাধীরাজের মুখোমুখি হয়ে পড়েন। এবং কিটুটা বাধাগ্রস' হন। ফলে তিনি মুসলিশ ধর্ম প্রচারে অধিক উৎসাহী হয়ে এই বারোবাজারে এক যুগকাল অবস'ান করেন তার দৃঢ় মনোবল উদারতা, দানশীলতা ও মাহনুবভতায় এলাকাবাসী মুগ্ধ হয়ে পড়েন। এলাকার অনেক অমুসলিম ইসলাম ধর্ম গ্রহনে ঝুকে পড়েন। এভাবে একযুগ অবস'ানের পর তিনি এক শিষ্যের তত্ত্বাবধানে দিয়ে তিনি শেষ জীবন বাগেরহাটে অতিবাহিত করেন।


 খানজাহান আলীর এক যুগ সাধনার স'াপত্য নিদর্শণ রয়ে গেছে এই বারোবাজারে। এ অঞ্চলের সবচেয়ে বড় নিদর্শন ৩২ গম্বুজবিশিস্ট সাত গাছিয়া আদিনা মসজিদ ও বারোবাজার গলাকাটা দিঘির ৬ গম্বুজবিশিস্ট একটি মসজিদ। যে মসজিদটি অনন-কাল ধরে  মাত্র দুটি ভিত্তির উপর দন্ডমান রয়েছে। এছাড়াও এখানে রয়েছে অগণিত মসজিদ। যে কোন মাটি টিপি সরালেই মসজিদের সন্ধান পাওয়া যায়। যার অনেকগুলো ইতোমধ্যে আবিস্কার করে আংশিক সংস্কারও করা হয়েছে। এখনও অনেক মসজিদ মাটির নিচে রয়েছে বলে ধারণা করা যায়। কারণ এ পর্যন- যতগুলো মাটির টিবি সরানো হয়েছে ততগুলো মসজিদের সন্ধান পাওয়া গেছে। কিংবদনি- আছে বহুকাল আগে এই বারোবাজার যুদ্ধে অথবা মহামারিতে জনশুন্য হয়ে পড়ে। এরপর এখানে বারোজন আওলিয়ার আগমন ঘটে এবং তখন থেকেই সৃষ্টি হয়েছে অগণিত মসজিদ,পুকুর আর দিঘি।


জলাশয়ের ঘটনাগুলো জনসাধারণ উপলব্ধি করলেও মসজিদগুলো মাটির টিবির নিচে থাকতে পারে এর গুরুত্ব এতদিন কেউ উপলব্ধি করতে পারেনি। কারণ প্রতিটি জলাশয়ের পাশেই অবসি'ত একটি করে মসজিদ। আর সেই মসজিদের সিড়ি জলাশয় পর্যন- পাকা করা ছিল। এসব পাকা সিড়ির ওপর প্রায় ৮/১০ ফুট পর্যন- মাটি চাপা পড়ে জনসাধারনের অদৃশ্যে হয়েছিল। বাংলাদেশ সরকারের খুলনাস' প্রত্নতত্ত্ব দপ্তরের কর্মকর্তারা কয়েক বছর আগে এখানে ক্যাম্প স'াপন করে কিছু মসজিদ ও পাকা সিড়িগুলো আবিস্কার করেছেন। এছাড়াও কয়েকটি মসজিদ সংস্কার করেছেন।  


বারবাজার ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জানান, ইতিমধ্যে প্রত্নতত্ত্ব বিভাগ মসজিদগুলোকে সংস্কারের কাজ করেছেন। সরকারিভাবে উদ্যোগ নিলে  এই বারবাজারে একটি পর্যটন কেন্দ্র গড়ে উঠা সম্ভব বলে মনে করি। তিনি আরো বলেণ, এখানে একটি পর্যটন কেন্দ্র গড়ে তোলা এলাকাবাসীর দীর্ঘদিনের দাবি।এটি করা হলে দেশ বিদেশে ছড়িয়ে পড়বে বারবাজারের নাম।


কালীগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর সিদ্দিক ঠান্ডু জানান, বারোবাজারের এই প্রত্নতত্ত্ব নিদর্শনের তেমন প্রচার না থাকায় মুলত পর্যটকশুন্য। এছাড়াও আবাসিক হোটেল-মোটেল না থাকায় পর্যটকদের নজর কাড়তেও ব্যর্থ হচ্ছে ফলে বর্তমান প্রজন্মের ইতিহাস- ঐতিহ্য সম্পর্কেও জানতে পারছে না। সরকারি  উদ্যোগে ব্যাপক প্রচারের মাধ্যমে পর্যটকদের উৎসাহিত করলে এবং সরকারিভাবে মসজিদগুলোর শোভাবর্ধনে যথাযথ ব্যবসা গ্রহন করলে এটি আরো নান্দনিক ও পর্যটনকেন্দ্র হিসেবে ব্যবহার করা যাবে।


All News Report

Add Rating:

0

সম্পর্কিত সংবাদ

ট্রেন্ডিং

ভারত-পাকিস্তান-বাংলাদেশ মিলে একটি দেশ হওয়া উচিত

ভারত-পাকিস্তান-বাংলাদেশ মিলে একটি দেশ হওয়া উচিত

কিশোরগঞ্জে হত্যা মামলায় আ.লীগ নেতা রিমান্ডে

কিশোরগঞ্জে হত্যা মামলায় আ.লীগ নেতা রিমান্ডে

মিঠাপুকুরে নিখোঁজের ৪দিন পর শিশুর লাশ উদ্ধার

মিঠাপুকুরে নিখোঁজের ৪দিন পর শিশুর লাশ উদ্ধার

বলিউডে না এসেও ১০০ কোটির মালিক রশ্মিকা

বলিউডে না এসেও ১০০ কোটির মালিক রশ্মিকা

মুফতিকে বিয়ে করে তোলপাড় ভারতীয় মিডিয়া, বিয়ের পর নামও বদলালেন সানা খান

মুফতিকে বিয়ে করে তোলপাড় ভারতীয় মিডিয়া, বিয়ের পর নামও বদলালেন সানা খান

সিলেট নগরীতে তালাবদ্ধ কক্ষ থেকে নববধূর লাশ উদ্ধার, স্বামী পলাতক

সিলেট নগরীতে তালাবদ্ধ কক্ষ থেকে নববধূর লাশ উদ্ধার, স্বামী পলাতক

রংপুরের মিঠাপুকুরে ১ সপ্তাহে প্রতিবন্ধী শিশু কলেজ ছাত্রীসহ চার নারী ধর্ষনের শিকার

রংপুরের মিঠাপুকুরে ১ সপ্তাহে প্রতিবন্ধী শিশু কলেজ ছাত্রীসহ চার নারী ধর্ষনের শিকার

রমিজকে তুলোধুনো করলেন হাফিজ

রমিজকে তুলোধুনো করলেন হাফিজ

শেখ হাসিনার গাড়িবহরে হামলা: আসামির আবেদন নিয়ে আদেশ মঙ্গলবার

শেখ হাসিনার গাড়িবহরে হামলা: আসামির আবেদন নিয়ে আদেশ মঙ্গলবার

এক ভবনে তিন ধর্ম

এক ভবনে তিন ধর্ম

চাকরিপ্রার্থীদের জন্য সুখবর

চাকরিপ্রার্থীদের জন্য সুখবর

এসএসসিতে ৫ টি বিষয়ে পরীক্ষা নেওয়ার সিদ্ধান্ত

এসএসসিতে ৫ টি বিষয়ে পরীক্ষা নেওয়ার সিদ্ধান্ত

ভূরুঙ্গামারী সীমান্তে বিএসএফ’র হাতে গরু ব্যবসায়ী আটক

ভূরুঙ্গামারী সীমান্তে বিএসএফ’র হাতে গরু ব্যবসায়ী আটক

মুকসুদপুর আধিপত্য বিস্তার নিয়ে দু'পক্ষের সংঘর্ষে নিহত ১

মুকসুদপুর আধিপত্য বিস্তার নিয়ে দু'পক্ষের সংঘর্ষে নিহত ১

মার্কিন নির্বাচন ব্যবস্থা সুষ্ঠু নয়: পুতিন

মার্কিন নির্বাচন ব্যবস্থা সুষ্ঠু নয়: পুতিন

সর্বশেষ

ক্ষমতা হস্তান্তর করতে রাজি ট্রাম্প

ক্ষমতা হস্তান্তর করতে রাজি ট্রাম্প

আজ শুরু বঙ্গবন্ধু কাপ টি-টোয়েন্টি

আজ শুরু বঙ্গবন্ধু কাপ টি-টোয়েন্টি

ময়মনসিংহে ডিবির হাতে ডাকাতসহ গ্রেফতার ৭

ময়মনসিংহে ডিবির হাতে ডাকাতসহ গ্রেফতার ৭

ধারাবাহিক আল কোরআন ; সূরা আল বাকারা, আয়াত ৬৯, বাংলা তরজমা ও তাফসির !

ধারাবাহিক আল কোরআন ; সূরা আল বাকারা, আয়াত ৬৯, বাংলা তরজমা ও তাফসির !

আসন্ন ধুনট পৌরসভার নির্বাচন উপলক্ষে আওয়ামী লীগের নির্বাচনী সভা

আসন্ন ধুনট পৌরসভার নির্বাচন উপলক্ষে আওয়ামী লীগের নির্বাচনী সভা

হাসিনা-মোদি বৈঠকে ৪টি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর হতে পারে

হাসিনা-মোদি বৈঠকে ৪টি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর হতে পারে

বই আর পরীক্ষা বিহীন স্কুল !

বই আর পরীক্ষা বিহীন স্কুল !

মেসিকে নিয়ে কোন আগ্রহই নেই ম্যানসিটির

মেসিকে নিয়ে কোন আগ্রহই নেই ম্যানসিটির

ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে রাখবে শীতকালীন এই সবজিটি

ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে রাখবে শীতকালীন এই সবজিটি

সময়

সময়

রাজধানীর সাততলা বস্তিতে ভয়াবহ আগুন

রাজধানীর সাততলা বস্তিতে ভয়াবহ আগুন

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে রেকর্ডের পাশে নাম আছে সাকিবের!

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে রেকর্ডের পাশে নাম আছে সাকিবের!

নায়ক ফারুকের মেয়ে বাবার সেবা করতে গিয়ে করোনায় আক্রান্ত

নায়ক ফারুকের মেয়ে বাবার সেবা করতে গিয়ে করোনায় আক্রান্ত

কাগজে-কলমে সবচেয়ে শক্তিশালী দল জেমকন খুলনা

কাগজে-কলমে সবচেয়ে শক্তিশালী দল জেমকন খুলনা

বগুড়ার ধুনটে বাস নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে খাদে, আহত ১৫

বগুড়ার ধুনটে বাস নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে খাদে, আহত ১৫