Feedback

সারাবিশ্ব

লেবাননের বিস্ফোরণে দেড় লাখ বাংলাদেশি আতঙ্কে

লেবাননের বিস্ফোরণে দেড় লাখ বাংলাদেশি আতঙ্কে
August 06
02:26am
2020

আই নিউজ বিডি ডেস্ক Verify Icon
Eye News BD App PlayStore

লেবাননের রাজধানী বৈরুতে ভয়াবহ বিস্ফোরণে হতাহতের ঘটনায় দেশটিতে অবস্থান করা প্রায় দেড় লাখ বাংলাদেশি আতঙ্কে রয়েছেন বলে জানিয়েছেন সেখানে নিয়োজিত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মেজর জেনারেল মো. জাহাঙ্গীর আল মুস্তাহিদুর রহমান।

বুধবার এক ভিডিও বার্তায় তিনি বলেন, ‘গতকাল বিকেল আনুমানিক ৬টায় লেবানন সমুদ্রবন্দরে অতিউচ্চক্ষমতা সম্পন্ন দুটি বিস্ফোরণ সংঘটিত হয়। এ বিস্ফোরণে লেবাননের জানমাল ও স্থাপনার ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি সাধিত হয়েছে। এ পর্যন্ত ১০০ জনের মতো লোক মারা গেছেন। আর চার হাজারের অধিক লোক আহত হয়েছেন।’

তিনি বলেন, ‘লেবাননে প্রায় দেড় লাখ বাংলাদেশি বিভিন্ন শ্রেণি-পেশায় কর্মরত। এ ঘটনায় চার বাংলাদেশি মারা গেছেন। এছাড়াও ৯৯ জন লোক আহত হয়েছেন। তাদের মধ্যে আটজন রফিক হারিরি হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন। তাদের চিকিৎসা যাতে ভালো হয়, দূতাবাসের তরফ থেকে সার্বক্ষণিক যোগাযোগ রাখছি এবং তাদের আর্থিক সহায়তা প্রদান করছি।’

রাষ্ট্রদূত বলেন, ‘যেখানে বিস্ফোরণ হয়েছে, সমুদ্রবন্দরে আমাদের নৌবাহিনীর একটি জাহাজ, যেটি ইউনিফিলে কর্মরত ছিল এবং বিস্ফোরণস্থল থেকে এর দূরত্ব ছিল ২০০ গজ। আমরা ঘটনা জানার সাথে সাথে আমি আমার কর্মকর্তা ও দূতাবাসের কর্মচারীরা অতিদ্রত সমুদ্রবন্দরে চলে যাই বিএনএস বিজয় জাহাজের কাছে। জাহাজের ক্যাপ্টেনের সঙ্গে কথা বলি। দেখতে পাই জাহাজের কিছু ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।’

তিনি বলেন, এছাড়াও কর্মকর্তা ও নাবিক মিলে প্রায় ২১ জনের মতো বিভিন্ন ধরনের আহত হয়েছেন। এর মধ্যে দুইজনের অবস্থা বেশ খারাপ ছিল। দুইজন মাথায় আঘাতপ্রাপ্ত হন। আমি আমার কর্মকর্তা দিয়ে দুইজনকে আমেরিকান হাসপাতালে পাঠাই। তাদের চিকিৎসা দেয়া হয়। একজনের অবস্থা স্থিতিশীল হওয়ার পর তাকে ছেড়ে দেয়া হয়। একজন এখনও গুরুতর। তাকে হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। এছাড়া আমরা দূতাবাসের মাধ্যমে ইউনিফিলের সঙ্গে যোগাযোগ করে ছয়জন কর্মকর্তাকে হেলিকপ্টার করে এবং বাকি ১০ জনকে সড়কপথে জাতিসংঘ হাসপাতালে পাঠানোর ব্যবস্থা করি।’

মেজর জেনারেল মো. জাহাঙ্গীর আল মুস্তাহিদুর রহমান বলেন, লেবাননের এ পরিস্থিতি আমাদের প্রধানমন্ত্রী সবসময় হালনাগাদ তথ্য নিচ্ছেন। সেই সঙ্গে পররাষ্ট্র ও প্রবাসীকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে বিভিন্ন ধরনের দিকনির্দেশনা দিচ্ছেন। যাতে আমাদের বাংলাদেশি কমিউনিটি এখানে ভালো থাকে, তাদের সুচিকিৎসা প্রদান করা এবং বিভিন্ন ধরনের সহায়তা প্রদান করা হয়। এছাড়াও পররাষ্ট্রমন্ত্রী আমাদের সঙ্গে অনেকবার কথা বলেছেন এবং বিভিন্ন ধরনের দিকনির্দেশনা দিয়েছেন। সেই সঙ্গে তিনি প্রস্তাব দিয়েছেন বাংলাদেশ থেকে কোনো চিকিৎসা বা খাদ্যসহায়তা পাঠানো যায় কি না।’

রাষ্ট্রদূত বলেন, ‘আমি ব্যক্তিগতভাবে মনে করি আমাদের দেশ থেকে যদি চিকিৎসা বা খাদ্যসহায়তা এখানে আসে তবে আমাদের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল হবে এবং লেবাননের সাথে আমাদের কূটনৈতিক সম্পর্ক আরও সুদৃঢ় হবে। এছাড়া আমরা পররাষ্ট্র ও প্রবাসীকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে সার্বক্ষণিক যোগাযোগ রক্ষা করছি। লেবাননে বর্তমান পরিস্থিতি বেশ থমথমে। সবাই বেশ আতঙ্কগ্রস্ত। বাংলাদেশি কমিউনিটি যারা আছেন, তারাও আতঙ্কগ্রস্ত। আমরা ফেসবুকের মাধ্যমে বিভিন্নভাবে তাদের উদ্বুদ্ধ করার চেষ্টা করছি। যাতে আমরা এ পরিস্থিতি থেকে উত্তরণ ঘটাতে পারি। লেবাননে তিন দিনের জাতীয় শোক ঘোষণা করেছে। বাংলাদেশ দূতাবাসও তাদের সঙ্গে একাত্বতা ঘোষণা করছে।’

All News Report

Add Rating:

0

সম্পর্কিত সংবাদ

ট্রেন্ডিং

ভারত-পাকিস্তান-বাংলাদেশ মিলে একটি দেশ হওয়া উচিত

ভারত-পাকিস্তান-বাংলাদেশ মিলে একটি দেশ হওয়া উচিত

কিশোরগঞ্জে হত্যা মামলায় আ.লীগ নেতা রিমান্ডে

কিশোরগঞ্জে হত্যা মামলায় আ.লীগ নেতা রিমান্ডে

মিঠাপুকুরে নিখোঁজের ৪দিন পর শিশুর লাশ উদ্ধার

মিঠাপুকুরে নিখোঁজের ৪দিন পর শিশুর লাশ উদ্ধার

মুফতিকে বিয়ে করে তোলপাড় ভারতীয় মিডিয়া, বিয়ের পর নামও বদলালেন সানা খান

মুফতিকে বিয়ে করে তোলপাড় ভারতীয় মিডিয়া, বিয়ের পর নামও বদলালেন সানা খান

বলিউডে না এসেও ১০০ কোটির মালিক রশ্মিকা

বলিউডে না এসেও ১০০ কোটির মালিক রশ্মিকা

রংপুরের মিঠাপুকুরে ১ সপ্তাহে প্রতিবন্ধী শিশু কলেজ ছাত্রীসহ চার নারী ধর্ষনের শিকার

রংপুরের মিঠাপুকুরে ১ সপ্তাহে প্রতিবন্ধী শিশু কলেজ ছাত্রীসহ চার নারী ধর্ষনের শিকার

রমিজকে তুলোধুনো করলেন হাফিজ

রমিজকে তুলোধুনো করলেন হাফিজ

শেখ হাসিনার গাড়িবহরে হামলা: আসামির আবেদন নিয়ে আদেশ মঙ্গলবার

শেখ হাসিনার গাড়িবহরে হামলা: আসামির আবেদন নিয়ে আদেশ মঙ্গলবার

এক ভবনে তিন ধর্ম

এক ভবনে তিন ধর্ম

চাকরিপ্রার্থীদের জন্য সুখবর

চাকরিপ্রার্থীদের জন্য সুখবর

মার্কিন নির্বাচন ব্যবস্থা সুষ্ঠু নয়: পুতিন

মার্কিন নির্বাচন ব্যবস্থা সুষ্ঠু নয়: পুতিন

সিলেট নগরীতে তালাবদ্ধ কক্ষ থেকে নববধূর লাশ উদ্ধার, স্বামী পলাতক

সিলেট নগরীতে তালাবদ্ধ কক্ষ থেকে নববধূর লাশ উদ্ধার, স্বামী পলাতক

এসএসসিতে ৫ টি বিষয়ে পরীক্ষা নেওয়ার সিদ্ধান্ত

এসএসসিতে ৫ টি বিষয়ে পরীক্ষা নেওয়ার সিদ্ধান্ত

ভূরুঙ্গামারী সীমান্তে বিএসএফ’র হাতে গরু ব্যবসায়ী আটক

ভূরুঙ্গামারী সীমান্তে বিএসএফ’র হাতে গরু ব্যবসায়ী আটক

গ্ল্যামার দুনিয়া ছেড়ে পরিবারের চাপেই কি মুফতিকে বিয়ে করলেন সানা খান?

গ্ল্যামার দুনিয়া ছেড়ে পরিবারের চাপেই কি মুফতিকে বিয়ে করলেন সানা খান?

সর্বশেষ

মেসিকে নিয়ে কোন আগ্রহই নেই ম্যানসিটির

মেসিকে নিয়ে কোন আগ্রহই নেই ম্যানসিটির

ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে রাখবে শীতকালীন এই সবজিটি

ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে রাখবে শীতকালীন এই সবজিটি

সময়

সময়

রাজধানীর সাততলা বস্তিতে ভয়াবহ আগুন

রাজধানীর সাততলা বস্তিতে ভয়াবহ আগুন

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে রেকর্ডের পাশে নাম আছে সাকিবের!

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে রেকর্ডের পাশে নাম আছে সাকিবের!

নায়ক ফারুকের মেয়ে বাবার সেবা করতে গিয়ে করোনায় আক্রান্ত

নায়ক ফারুকের মেয়ে বাবার সেবা করতে গিয়ে করোনায় আক্রান্ত

কাগজে-কলমে সবচেয়ে শক্তিশালী দল জেমকন খুলনা

কাগজে-কলমে সবচেয়ে শক্তিশালী দল জেমকন খুলনা

বগুড়ার ধুনটে বাস নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে খাদে, আহত ১৫

বগুড়ার ধুনটে বাস নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে খাদে, আহত ১৫

প্রশংসিত হচ্ছে জহুর কবির ও মমো রহমানের "ভালোবাসা তুলে রাখি "

প্রশংসিত হচ্ছে জহুর কবির ও মমো রহমানের "ভালোবাসা তুলে রাখি "

বাংলাদেশের ক্যাপ্টেন্সি আর নয়: মুশফিক

বাংলাদেশের ক্যাপ্টেন্সি আর নয়: মুশফিক

হত্যার ১৪ বছর পর ফাঁসির আসামী গ্রেপ্তার

হত্যার ১৪ বছর পর ফাঁসির আসামী গ্রেপ্তার

পাইকগাছায় মটর সাইকেল চোর আটক

পাইকগাছায় মটর সাইকেল চোর আটক

বটেশ্বর থেকে ভুয়া পাসপোর্টধারী দুই নাইজেরিয়ান নাগরিক আটক

বটেশ্বর থেকে ভুয়া পাসপোর্টধারী দুই নাইজেরিয়ান নাগরিক আটক

সিসিকের অভিযানে কানিজ প্লাজা থেকে ৩ লাখ টাকা আদায়

সিসিকের অভিযানে কানিজ প্লাজা থেকে ৩ লাখ টাকা আদায়

মাস্কের ব্যবহার নিশ্চিতে সিলেটে মোবাইল কোর্টের অভিযান

মাস্কের ব্যবহার নিশ্চিতে সিলেটে মোবাইল কোর্টের অভিযান