Feedback

সাহিত্য

সাহিত্যাঙ্গনের উজ্জ্বল নক্ষত্র কবি মনিরউদ্দীন ইউসুফ

সাহিত্যাঙ্গনের উজ্জ্বল নক্ষত্র কবি মনিরউদ্দীন ইউসুফ
August 03
10:13am
2020
Md.Abdul Latif
kishoreganj, kishoreganj:
Eye News BD App PlayStore
বাংলা সাহিত্যের অঙ্গনে যে ক’জন প্রতিভাধর লেখকের জন্ম হয়েছে তাঁদের অন্যতম কবি মনিরউ দ্দীন ইউসুফ। তিনি মহাকবি আবুল কাশেম ফেরদৌসির মহাকাব্য ‘শাহনামা’ বাংলায় অনুবাদ করে বিখ্যাত হলেও সাহিত্যাঙ্গনের নানা শাখায় কাজ করেছেন। সাহিত্যের প্রতিটি শাখায় তাঁর সুদৃঢ় ও উজ্জ্বল বিচরণ ছিল। কবিতা, প্রবন্ধ, গবেষণা, উপন্যাস, নাটক, অনুবাদ, শিশুসাহিত্য এমনকি চলচ্চিত্রাঙ্গনেও সক্রিয় ছিলেন।     

কবি মনিরউদ্দীন ইউসুফের পূর্বপুরুষ মোহাম্মদ আরাবি বাগদাদ থেকে ভাগ্যান্বেষণে দিল্লিতে এসেছিলেন। পরে তৎকালীন বাংলার প্রাণপুরুষ ঈসা খাঁর পুত্র মুসা খাঁর বিদ্রোহ দমন করতে মোগল সম্রাট তাঁরই উত্তরপুরুষ নৌবাহিনী প্রধান করিম খাঁকে বাংলায় প্রেরণ করেন। করিম খাঁ কিশোরগঞ্জের বৌলাই নামক স্থানে এসে নরসুন্দা নদীতীরে তাঁর নৌবাহিনীর ঘাঁটি স্থাপন করেন। পরবর্তী সময়ে বিদ্রোহ প্রশমিত হলেও বাংলার রূপ-বৈচিত্র্য, সৌন্দর্য এবং সাধারণ মানুষের আনুগত্যে মুগ্ধ হয়ে তিনি এখানেই স্থায়ীভাবে বসবাসের সিদ্ধান্ত নেন। এভাবেই বৌলাই সাহেববাড়ির গোড়াপত্তন ও রাজত্বের সূত্রপাত হয়। কবি মনিরউদ্দীন ইউসুফ বিখ্যাত ওই পরিবারেরই অধস্তন বংশধর।     

তবে কবি মনিরউদ্দীন ইউসুফ আসলে নিজের গুণেই পরিচিত।  সাহিত্যের নানা অঙ্গনে তাঁর উজ্জ্বল বিচরণ। বিশেষ করে যে কজন বাঙালি কবি, গবেষক ও অনুবাদক ফারসি ভাষার বিখ্যাত গ্রন্থসমূহ অনুবাদ করে বিশেষ কৃতিত্ব দেখিয়েছেন, তিনি তাঁদের মধ্যে অন্যতম। মহাকবি আবুল কাশেম ফেরদৌসির মহাকাব্য ‘শাহনামা’ বাংলায় অনুবাদ করে কবি মনিরউদ্দীন ইউসুফ বাংলা সাহিত্যকে সমৃদ্ধ করেছেন। এ কাজের জন্য তিনিও চিরকাল অমর হয়ে থাকবেন।     

প্রাসঙ্গিকভাবেই এখানে ‘শাহনামা’ সম্পর্কে কিছুটা আলোকপাত করা দরকার। বলা হয়, ফেরদৌসি গজনির অধিপতি সুলতান মাহমুদের অনুরোধেই এ মহাকাব্য লিখতে শুরু করেন। যদিও এ নিয়ে মতবিরোধ রয়েছে। ‘শাহনামা’ ইরানীয় জাতীয়তার উজ্জীবনের কাব্য। একে বলা হয় ইরানের জাতীয় মহাকাব্য। ফেরদৌসি এই কাব্যের মাধ্যমে তাঁর স্বদেশ ইরানের সুপ্ত প্রাণধর্মের অনুসন্ধান করেছেন। ‘ইতস্তত ছড়িয়ে থাকা কিংবদন্তি ও ইতিকথার উদ্ধারে’ তিনি ব্যাপৃত হয়েছেন। ইরানের অতীতের সব মহত্তম ইতিহাস উন্মোচনে তিনি সচেষ্ট হয়েছেন। তিনি ইরানের হৃদপিন্ডে নবরক্ত সঞ্চালনের মাধ্যমে তার গৌরবোজ্জ্বল অতীতের মতো ভবিষ্যৎকেও প্রাণপূর্ণ ও মহৎরূপে উদ্ভাসিত হতে আশাবাদী হয়েছেন। দীর্ঘ পঁয়ত্রিশ বছর সাধনার মাধ্যমে ষাট হাজার শ্লোকবিশিষ্ট ‘শাহনামা’ তিনি রচনা করেছিলেন, যা আজ এক মহামূল্যবান ঐতিহাসিক দলিল ও সম্পদ হিসেবে বিবেচিত।     

কবি মনিরউদ্দীন ইউসুফ অনুবাদ-সাহিত্য ছাড়াও সাহিত্যাঙ্গনের নানা শাখায় কাজ করেছেন। সাহিত্যের প্রতিটি শাখায় তাঁর সুদৃঢ় ও উজ্জ্বল বিচরণ ছিল। কবিতা, প্রবন্ধ, গবেষণা, উপন্যাস, নাটক, অনুবাদ, শিশুসাহিত্য এমনকি চলচ্চিত্রাঙ্গনেও সক্রিয় ছিলেন।     কিশোরগঞ্জ জেলা শহর থেকে প্রায় তিন কিলোমিটার দূরে বৌলাই জমিদারবাড়ি। এটি বনেদি ও সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবার হিসেবে পরিচিত। এছাড়া এ পরিবারের রয়েছে সাহিত্যাঙ্গনে সৃষ্টিশীল অবদান। কবির পিতা মিসবাহউদ্দীন আহমদ ছিলেন আরবি-ফারসি চর্চায় সুপরিচিত । তাঁর চাচা খালেদ বাঙালি ছিলেন উর্দু ভাষার বিখ্যাত কবি। তৎকালীন সময়ে বৌলাই থেকে ‘আকতার’ নামে একটি উর্দু ভাষায় পত্রিকা প্রকাশিত হতো। এটি ওই খালেদ বাঙালি প্রকাশ করতেন। পারিবারিক পরিবেশই তাঁর কবিমন সৃষ্টিতে অনুপ্রেরণা জুগিয়েছে। আরবি-ফারসি চর্চায় একটা চমৎকার পরিবেশের মধ্য দিয়েই তিনি বড় হয়েছেন।

কবির বাড়ি কিশোরগঞ্জের বৌলাই হলেও শৈশবের বেশি সময় অতিবাহিত হয়েছে নানার বাড়ি তাড়াইলের জাওয়ারে। জাওয়ার স্কুল থেকে ষষ্ঠ শ্রেণীতে উত্তীর্ণ হয়ে তিনি কিশোরগঞ্জ শহরের রামানন্দ হাইস্কুলে ভর্তি হন। পরে তিনি চলে যান ময়মনসিংহ এবং পরবর্তীকালে ঢাকায়। পড়াশোনা করার সময়ই তাঁর লেখালেখি শুরু ও সাহিত্যজগতে হাতেখড়ি। তিনি তখন সাংস্কৃতিক কর্মকান্ডে ও জড়িয়ে পড়েন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার সময় তাঁর একটি কবিতার বই প্রকাশিত হয় যার নাম ‘উপায়ন’। তাঁর সহপাঠীদের মধ্যে যাঁরা তাঁর খুবই অন্তরঙ্গ ছিলেন তাঁদের মধ্যে দৈনিক সংবাদের সৈয়দ নূরুদ্দিন, কবি সানাউল হক ও প্রখ্যাত ঔপন্যাসিক সৈয়দ ওয়ালীউল্লাহ অন্যতম।

এ সময় তাঁর সাথে আবু জাফর শামসুদ্দীনেরও সম্পর্ক গড়ে উঠেছিল। ফারসি ও উর্দু কাব্যের তিনি ছিলেন বিদগ্ধ সমঝদার। রুমি, হাফিজ, ওমর খৈয়াম, শেখ সাদি, ফেরদৌসি, মির্জা গালিব থেকে মুখস্থ আবৃত্তি করে তিনি শোনাতেন এবং অর্থও বলে দিতেন। রবীন্দ্রনাথ, নজরুল, জীবনানন্দ দাশ প্রমুখ বাংলার শ্রেষ্ঠ কবিদের বহু কবিতা ও গান তাঁর মুখস্থ ছিল।     ছেলেবেলায় গড়ে ওঠা মন-মেজাজ বড় হয়ে ইংরেজি শিক্ষার প্রভাবেও বিলুপ্ত হয়নি। আরবি-ফারসির প্রতি এতটুকুও ভালোবাসা কমেনি।

তিনি সাহিত্যে বাঙালি ও মুসলিম বাঙালির সমন্বয়ে গড়া এক নতুন বলয় তৈরি করেছিলেন। তিনি উর্দু-আরবি-ফারসি ভাষার পÐিত ছিলেন। যে কারণে তিনি সহজেই ‘শাহনামা’সহ একাধিক ফারসি সাহিত্যের অনুবাদ দক্ষতার সাথে করতে পেরেছেন।     মরমী কবি জালালুদ্দিন রুমির অমর কাব্য ‘মসনবি’ এবং ইমাম গাজ্জালি, হাফিজ, খৈয়াম, গালিব ও ইকবালের মতো মহাশক্তিধর পÐিতদের সাহিত্যাঙ্গনের তিনি ছিলেন মধুপিয়াসী ভ্রমর। ১৯৬০ সালে মহাকবি ইকবালের ‘বাঙ্গেদারা,’ ‘বালেজিব্রিল,’ ‘জারবেকলিম’ ও ‘আরমুগানে হেজাজ’ থেকে নির্বাচিত কবিতার অনুবাদ সংকলন হিসেবে ইকবালের কাব্য সঞ্চয়ন তিনি প্রকাশ করেন। ১৯৬৬ সালে  তাঁর আলোচিত রুমির মসনবি গ্রন্থাকারে প্রকাশিত হয়। অনেকের মতে, এটি বাংলা সাহিত্যে এক অনন্য সংযোজন।     কবি মনিরউদ্দীন ইউসুফের অনন্য এবং বিস্ময়কর সৃষ্টি ‘শাহনামা’র পূর্ণাঙ্গ বঙ্গানুবাদ। তিনি এর অনুবাদ করেন দীর্ঘ ১৭ বছর পরিশ্রম ও সাধনার ফলে। বাংলা একাডেমি এটি ছয় খন্ডে প্রকাশ করেছে। এটি কবির অবিস্মরণীয় কীর্তি এবং বাংলা সাহিত্যে এক অমূল্য সম্পদ হিসেবে গণ্য।     

মনিরউদ্দীন ইউসুফকে আমরা কবি ও অনুবাদক হিসেবেই বেশি চিনি। তিনি শিশুতোষ গ্রন্থ, প্রবন্ধ, উপন্যাস, নাটক ও চরিতকথাও রচনা করেছেন। তিনি ‘ঝড়ের রাতের শেষে’সহ মোট তিনটি উপন্যাস লিখেছেন। স্বাধীনতা-উত্তর তাঁর ‘পনসের কাঁটা’ এবং ‘ওর বয়েস যখন এগারো’ দুটি উপন্যাসে এ দেশের সমাজছবি যেভাবে চিত্রায়ণ করেছেন তা থেকেই তাঁর সাহসিকতা ও বলিষ্ঠতা প্রমাণিত হয়।     তিনি বিশ্বাস করতেন, বাঙালি মুসলমানদের উন্নতি ও বিকাশের জন্য সাহিত্য-সংস্কৃতিচর্চা অপরিহার্য। এই মূল্যবোধ থেকেই তিনি সকল সৃষ্টিকর্মে নিজেকে নিয়োজিত করেছিলেন। যুক্তি, মুক্তবুদ্ধি ও মানবিক মূল্যবোধের প্রতি বিশ্বস্থ কবি কখনো কোনো নির্দিষ্ট রাজনীতির ছন্দে বাঁধা পড়েননি।

একজন খাঁটি দেশপ্রেমিক হিসেবে প্রগতিশীল চিন্তাধারায় সবসময় মানবকল্যাণ ও মানুষের মুক্তির জয়গান গেয়েছেন। তিনি ছিলেন সকল মানুষের আপনজন। কবি মনিরউদ্দীন ইউসুফকে সাহিত্যের স্বীকৃতিস্বরূপ ১৯৬৮ সালে হাবিব ব্যাংক পুরস্কারে ভ‚ষিত করা হয়। কবিকে তাঁর উৎকৃষ্ট ও কুশলী অনুবাদক হিসেবে বাংলা একাডেমি পুরস্কার দেওয়া হয় ১৯৭৮ খ্রিস্টাব্দে। ১৯৯৩ সালে তাঁকে মরণোত্তর একুশে পদকে ভ‚ষিত করা হয়। তাঁর চিন্তায় ইসলামি মূল্যবোধ ও মানবতার জয়গান প্রবলভাবে প্রস্ফুটিত হয়েছে।

তিনি সময়ের দাবিকেও উপেক্ষা করেননি। বাস্তবতা ও আধুনিক  চিন্তার তিনি পরিপন্থী ছিলেন না। অনেকের মতে, কবি তাঁর চিন্তার জগতে দুটি বিপরীতমুখী সংস্কৃতিকে ধারণ করতে সক্ষম হয়েছিলেন। ধর্মের অমিয় ধারা, সনাতন ও স্বকীয় বৈশিষ্ট্যকে তিনি গভীরভাবে লালন করেছেন। তিনি আধুনিক, যুগোপযোগী, অগ্রসর চিন্তা ও চেতনার সাথে একাত্মতা ঘোষণা করেছেন। এই দুই ধারার অপূর্ব সন্নিবেশ তাঁর লেখায়, চিন্তায় ও কার্যক্রমে প্রস্ফুটিত হয়েছে।  কোনো সংঘাত নয়, বরং অপূর্ব মিলনের সুর মূর্ত হয়ে উঠেছে তাঁর লেখায়। সমাজ, রাষ্ট্র ও ব্যক্তিজীবনের একটি ক্ষেত্রে কবির এই অনুভব এবং চিন্তা বহুধাবিভক্ত জাতিকে নতুন পথের সন্ধান দিতে সক্ষম। এখানেই তাঁর সার্থকতা ও কৃতিত্ব।     ক. মোহাম্মদ সাইদুর ও মোহাম্মদ আলী খান সম্পাদিত ‘কিশোরগঞ্জের ইতিহাস।  খ. মু আ লতিফ রচিত ‘কিশোরগঞ্জের কীর্তিমানেরা।   

All News Report

Add Rating:

0

সম্পর্কিত সংবাদ

ট্রেন্ডিং

ক্যান্টনমেন্ট কলেজ, যশোরের নতুন অধ্যক্ষ হলেন লেফটেন্যান্ট কর্ণেল নুসরাত নূর আল চৌধুরী

ক্যান্টনমেন্ট কলেজ, যশোরের নতুন অধ্যক্ষ হলেন লেফটেন্যান্ট কর্ণেল নুসরাত নূর আল চৌধুরী

ফেনীর ছাগলনাইয়ায় বৃদ্ধ মায়ের বিষ পানে আত্নহত্যা! আটক ৩!

ফেনীর ছাগলনাইয়ায় বৃদ্ধ মায়ের বিষ পানে আত্নহত্যা! আটক ৩!

ভৈরবে গাজাঁ আত্মসাতের অভিযোগে এসআই প্রত্যাহার

ভৈরবে গাজাঁ আত্মসাতের অভিযোগে এসআই প্রত্যাহার

দুই বছরেও শেষ হয়নি হাবিপ্রবির গ্রন্থাগার ও পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক শাখার অটোমেশনের কাজ

দুই বছরেও শেষ হয়নি হাবিপ্রবির গ্রন্থাগার ও পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক শাখার অটোমেশনের কাজ

পাগলার কান্দিপাড়ায় অজ্ঞান পার্টির কবলে ১০ বছরের মাদ্রাসা ছাত্র

পাগলার কান্দিপাড়ায় অজ্ঞান পার্টির কবলে ১০ বছরের মাদ্রাসা ছাত্র

প্রতিদিন ডিম খাওয়া কি ভাল? সাবধান করলেন গবেষকরা

প্রতিদিন ডিম খাওয়া কি ভাল? সাবধান করলেন গবেষকরা

পাকিস্তানসহ ১৩ টি দেশকে ভিসা দিবে না আরব আমিরাত

পাকিস্তানসহ ১৩ টি দেশকে ভিসা দিবে না আরব আমিরাত

আবারও ইউটার্ন ট্রাম্পের, 'কখনও হার মানব না'

আবারও ইউটার্ন ট্রাম্পের, 'কখনও হার মানব না'

ভালোবাসার প্রতিদান তানিয়া সুলতানা হ্যাপি

ভালোবাসার প্রতিদান তানিয়া সুলতানা হ্যাপি

ঘূর্ণিঝড়ের আকারে আজ রাতেই ছোবল মারতে পারে নিভার, সর্বোচ্চ গতি হতে পারে ১৪৫ কিমি

ঘূর্ণিঝড়ের আকারে আজ রাতেই ছোবল মারতে পারে নিভার, সর্বোচ্চ গতি হতে পারে ১৪৫ কিমি

কিংবদন্তী ফুটবলার ম্যারাডোনা আর নেই

কিংবদন্তী ফুটবলার ম্যারাডোনা আর নেই

আমতলীতে নদী দখল করে ইটভাটা, দ্রুত বন্ধের দাবী এলাকাবাসীর

আমতলীতে নদী দখল করে ইটভাটা, দ্রুত বন্ধের দাবী এলাকাবাসীর

পাকিস্তানে ধর্ষকের শাস্তি "পুরুষাঙ্গ" অকেজো করে দেওয়া

পাকিস্তানে ধর্ষকের শাস্তি "পুরুষাঙ্গ" অকেজো করে দেওয়া

যেনো বারী সিদ্দিকীর প্রতিচ্ছবি "রাসেল" আরটিভি'র মঞ্চে

যেনো বারী সিদ্দিকীর প্রতিচ্ছবি "রাসেল" আরটিভি'র মঞ্চে

রংপুরের মহাসড়কে দুর্ধর্ষ ডাকাতি ১জন নিহত ১জন আহত

রংপুরের মহাসড়কে দুর্ধর্ষ ডাকাতি ১জন নিহত ১জন আহত

সর্বশেষ

হাবিপ্রবির শিক্ষকের টু স্টেজ গ্রাইন ড্রায়ারের উপর চূড়ান্ত কর্মশালা অনুষ্ঠিত

হাবিপ্রবির শিক্ষকের টু স্টেজ গ্রাইন ড্রায়ারের উপর চূড়ান্ত কর্মশালা অনুষ্ঠিত

নরসিংদীতে স্বাস্থ্য সহকারীদের কর্মবিরতি পালন

নরসিংদীতে স্বাস্থ্য সহকারীদের কর্মবিরতি পালন

শ্যামনগরে ট্রলির চাকা বিস্ফোরণে এক ব্যক্তি মারাত্নক আহত

শ্যামনগরে ট্রলির চাকা বিস্ফোরণে এক ব্যক্তি মারাত্নক আহত

অভয়নগরে স্ত্রীর গায়ে আগুন দিয়ে স্বামী পলাতক

অভয়নগরে স্ত্রীর গায়ে আগুন দিয়ে স্বামী পলাতক

পবায় জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সপ্তাহ উদযাপনের উদ্বোধন

পবায় জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সপ্তাহ উদযাপনের উদ্বোধন

পলাশবাড়ী পৌর নির্বাচনে নৌকার জয় নিশ্চিত করতে দলীয় নেতাকর্মীদের হতে হবে ঐক্যবদ্ধ

পলাশবাড়ী পৌর নির্বাচনে নৌকার জয় নিশ্চিত করতে দলীয় নেতাকর্মীদের হতে হবে ঐক্যবদ্ধ

জঙ্গিবাদ বিরোধী সমাবেশে আজিজুর রহমান আজিজ- বঙ্গবন্ধু কে নিয়ে করুচিপূর্ণ মন্তব্য সহ্য করা হবে না

জঙ্গিবাদ বিরোধী সমাবেশে আজিজুর রহমান আজিজ- বঙ্গবন্ধু কে নিয়ে করুচিপূর্ণ মন্তব্য সহ্য করা হবে না

সাভারে ৮ বছরের শিশু ধর্ষণের শিকার

সাভারে ৮ বছরের শিশু ধর্ষণের শিকার

শূন্যে পাড়ি জমিয়েছেন আর্জেন্টাইন জাদুকর ম্যারাডোনা

শূন্যে পাড়ি জমিয়েছেন আর্জেন্টাইন জাদুকর ম্যারাডোনা

ম্যারাডোনার সম্মানে বেশ কিছু বড় স্টেডিয়ামেই জ্বলেছিল আলো

ম্যারাডোনার সম্মানে বেশ কিছু বড় স্টেডিয়ামেই জ্বলেছিল আলো

ম্যারাডোনার  জমানো সঞ্চয় মাত্র ৮৫ লাখ টাকা, শোধ হয়নি দায়

ম্যারাডোনার জমানো সঞ্চয় মাত্র ৮৫ লাখ টাকা, শোধ হয়নি দায়

মাস্ক না পরায় ১৬ জনকে জরিমানা

মাস্ক না পরায় ১৬ জনকে জরিমানা

রূপসায় হেলমেটবিহীন মটর সাইকেল চালানোর উপর ভ্রাম্যমাণ আদালত

রূপসায় হেলমেটবিহীন মটর সাইকেল চালানোর উপর ভ্রাম্যমাণ আদালত

আশাশুনি মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার বাকী বিল্লাহ’র বিরুদ্ধে ঘুষ, দুর্নীতি ও স্বেচ্ছাচারিতার অভিযোগ

আশাশুনি মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার বাকী বিল্লাহ’র বিরুদ্ধে ঘুষ, দুর্নীতি ও স্বেচ্ছাচারিতার অভিযোগ

মাস্ক না পারায় ভ্রাম্যমাণ আদালতে ১৪ জনের জরিমানা

মাস্ক না পারায় ভ্রাম্যমাণ আদালতে ১৪ জনের জরিমানা