সন্তানদের সামনেই নদীতে ঝাঁপ দিলেন মা

গোপালগঞ্জের শেখ লুৎফর রহমান সেতু

ফায়ার সার্ভিস ঘটনাস্থলে এসে খোঁজাখুঁজির পরেও তাকে উদ্ধার করতে পারেনি

গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় সন্তানদের সামনে সেতু থেকে নদীতে লাফ দিয়েছেন আফরোজা খানম (২৩) নামে এক নারী। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত তার কোনো সন্ধান পায়নি ফায়ার সার্ভিস। পুলিশের ধারণা, পারিবারিক কলহের জেরেই তিনি নদীতে ঝাঁপ দেন।

মঙ্গলবার (১১ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে ঘটনাটি ঘটেছে টুঙ্গিপাড়া উপজেলার মধুমতি নদীর শেখ লুৎফর রহমান সেতুতে। ওই নারী কোটালীপাড়া উপজেলার সোনারগাতী গ্রামের ওমান প্রবাসী আলিমুজ্জামানের স্ত্রী। তার বাবার বাড়ি টুঙ্গিপাড়া উপজেলার বাঁশবাড়িয়া গ্রামে। সন্তানদের নিয়ে গওহরডাঙ্গা গ্রামের ভাড়াবাড়িতে থাকতেন তিনি।

উপস্থিত জনতাদের একজন টুঙ্গিপাড়া ফায়ার সার্ভিসকে খবর দেয়। ফায়ার সার্ভিস ঘটনাস্থলে এসে খোঁজাখুঁজির পরেও তাকে উদ্ধার করতে পারেনি।

টুঙ্গিপাড়া ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন অফিসার সরকার শরিফুল ইসলাম জানান, সেতু থেকে ঝাঁপিয়ে এক নারীর আত্মহত্যার খবর পেয়ে টুঙ্গিপাড়া ফায়ার সার্ভিসের একটি ইউনিট ঘটনাস্থলে যায়। দীর্ঘক্ষণ খোঁজাখুঁজির পরেও তাকে উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি।

আফরোজার ভাই মোহাম্মদ উল্লাহ জানান, ৮-৯ বছর আগে তার বোনের বিয়ে হয়। তাব ৭ বছর বয়সী একটি মেয়ে ও সাড়ে ৪ বছর বয়সী একটি ছেলে রয়েছে। তার স্বামী ৫ বছর আগে ওমান যান। প্রবাস থেকে ঠিকমতো টাকা না পাঠানোর কারণে তাদের মধ্যে অশান্তি লেগেই থাকতো।

অস্বচ্ছলতার কারণেই আফরোজা আত্মহত্যার পথ বেছে নিয়েছেন বলে মন্তব্য করেন তিনি।

প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাত দিয়ে টুঙ্গিপাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এ.এফ.এম নাসিম জানান, দুপুরের দিকে ইজিবাইকে করে বোরকা পরা এক নারী দুই সন্তানকে সঙ্গে নিয়ে ওই সেতুর মাঝখানে আসেন। কিছুক্ষণ দাঁড়িয়ে থেকে তিনি সন্তানদের কাছে মুঠোফোন ও ব্যাগ রেখে মধুমতি নদীতে ঝাঁপ দেন। ঘটনার পর শিশু দু’টির চিৎকারে লোকজন জড়ো হয়।

ওসি আরও বলেন, পারিবারিক কলহের জেরে ওই নারী নদীতে ঝাঁপ দিয়েছেন বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। মঙ্গলবার বিকেল ৫টা পর্যন্ত তাকে উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি। এই ঘটনায় কোনো মামলা করা হয়নি।

মতামত দিন

avatar