ভারতে করোনা চিকিৎসায় সম্পৃক্ত চিকিৎসক-স্বাস্থ্যকর্মীদের জন্য ৫০ লাখ রুপির বীমা

ভারতের অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণ।

করোনাভাইরাসের কারণে সৃষ্ট সংকট মোকাবিলায় দরিদ্র ও নিন্ম আয়ের মানুষের জন্য ১ লাখ ৭০ হাজার কোটি রুপির ‘প্রধানমন্ত্রী দরিদ্র কল্যাণ স্কিম’ চালু করেছে ভারত সরকার।

আজ বৃহস্পতিবার ভারতের অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণ এ ঘোষণা দেন। ভারতের সংবাদমাধ্যম ইন্ডিয়া টুডের প্রতিবেদনে এ তথ্য উল্লেখ করা হয়েছে।

এই স্কিমের আওতায় দরিদ্র ও নিন্ম আয়ের মানুষের ব্যাংক অ্যাকাউন্টে টাকা পাঠানো হবে। একইসঙ্গে তাদের খাদ্য সরবরাহ করবে ভারত সরকার। শহর এবং গ্রামের মানুষের জন্য এই বিশেষ প্যাকেজ চালু করা হয়েছে।

যারা (চিকিৎসক, স্বাস্থ্যকর্মী, হাসপাতালের পরিচ্ছন্নতাকর্মী) করোনা আক্রান্তদের চিকিৎসাসেবার সঙ্গে যুক্ত থাকবেন তাদের জন্য মাথাপিছু ৫০ লাখ রুপি স্বাস্থ্য বীমার ব্যবস্থা রাখা হয়েছে স্কিমে।

আগামী তিন মাস নিম্ন আয়ের দরিদ্র পরিবার ১০ কেজি করে চাল অথবা গম পাবেন। কৃষকদের প্রতিমাসে দুই হাজার করে রুপি দেওয়া হবে।

যেসব প্রতিষ্ঠানের কর্মী সংখ্যা ১০০ বা তার কম এবং ৯০ শতাংশ কর্মীর বেতন ১৫ হাজারের কম, তাদের তিন মাসের প্রভিডেন্ট ফান্ড (পিএফ) অনুদান দেবে ভারত সরকার।

অ্যামপ্লয়িজ প্রভিডেন্ট ফান্ড অর্গানাইজেশন (ইপিএফও) নথিভুক্ত ৪.৮ কোটি শ্রমিক তিন মাসের বেতন অথবা প্রভিডেন্ট ফান্ডে জমা রুপির ৭৫ শতাংশ অগ্রিম নিতে পারবেন৷

নির্মাণ শ্রমিকদের জন্য ৩১ হাজার কোটি রুপির তহবিল রেখেছে সরকার। এছাড়া তিন কোটি প্রবীণ নাগরিক, বিধবা এবং প্রতিবন্ধীদের ১ হাজার রুপি করে ভাতা প্রদান করা হবে।

ডিস্ট্রিক্ট মিনারেল ফান্ড (ডিএমএফ) ব্যবহার করে করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধে চিকিৎসা ব্যবস্থা উন্নত করতে রাজ্য সরকারদের নির্দেশ দিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার।

মতামত দিন

avatar