বান্দরবানের তিন উপজেলা লকডাউন:সেনা টহল শুরু

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে বান্দরবানের তিন উপজেলা লকডাউন (অবরুদ্ধ) ঘোষণা করেছে জেলা প্রশাসন। উপজেলাগুলোর মধ্যে রয়েছে লামা, আলীকদম ও নাইক্ষ্যংছড়ি।

মঙ্গলবার (২৪ মার্চ) সন্ধ্যায় এ তিন উপজেলা লকডাউন ঘোষণা করা হয়। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বান্দরবানের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মো. শামীম হোসেন।

তিনি বলেন, কক্সবাজারে করোনা রোগী শনাক্ত হওয়ায় এই তিন উপজেলা লকডাউন করা হয়েছে। কারণ এই তিন উপজেলা কক্সবাজারের পার্শ্ববর্তী। এছাড়া এই তিনটি উপজেলায় জনসমাগম বেশি। এখানে করোনাভাইরাস যেন ছড়াতে না পারে সেজন্য লকডাউন করা হলো। পরবর্তী ঘোষণা না দেয়া পর্যন্ত এ নির্দেশ কার্যকর থাকবে।

অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মো. শামীম হোসেন আরও বলেন, লকডাউন চলাকালে ওই সব উপজেলায় কেউ প্রবেশ করতে পারবেন না, কেউ বেরও হতে পারবেন না। সবাইকে ঘরে থাকতে হবে। শুধু জরুরি সেবা অব্যাহত থাকবে।

এদিকে করোনাভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে বান্দরবানে সেনাবাহিনী কাজ শুরু করেছে। মঙ্গলবার দুপুর থেকে টহলের পাশাপাশি লিফলেট বিতরণ ও মাইকিং করেন সেনা সদস্যরা। এছাড়া জনসমাগম হয় এমন দোকান, হোটেল, শপিংমল বন্ধ করে দিয়েছেন তারা। করোনা আতঙ্কে বান্দরবান শহর এখন ফাঁকা। সড়কে সীমিত আকারে চলছে যানবাহন।

জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয় সূত্র জানায়, এ পর্যন্ত বান্দরবানে ৫০ জন কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন। এদের মধ্যে নয়জন হাসপাতলে, বাকি ৪১ জন হোম কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন।

এর আগে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে মাদারীপুরের শিবচর লকডাউন করা হয়। এরপর গাইবান্ধার সাদুল্লাপুর উপজেলা লকডাউন করে প্রত্যাহার করা হয়।

মতামত দিন

avatar