দিনাজপুরে মেডিকেল সহকারী আইসোলেশনে:কোয়ারেন্টাইনে পরিবার

দিনাজপুরের বিরামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অ্যাসিস্ট্যান্টকে আইসোলেশনে ভর্তি করা হয়েছে। একই সঙ্গে তার পরিবারকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে।

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হতে পারেন’ সন্দেহে মঙ্গলবার (২৪ মার্চ) দুপুরে ওই মেডিকেল অ্যাসিস্ট্যান্টকে আইসোলেশনে ভর্তি করা হয়। এর আগে সোমবার দুপুরে আট বছরের এক শিশুকে ‘করোনা’ সন্দেহে আইসোলেশনে ভর্তি করা হয়। বিরামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্বাস্থ্য কর্মকর্তা সোলায়মান মেহেদী বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

সোলায়মান মেহেদী বলেন, মঙ্গলবার দুপুরে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অ্যাসিস্ট্যান্ট হঠাৎ গলাব্যথা, জ্বর, সর্দি ও শ্বাসকষ্টে আক্রান্ত হওয়ায় হাসপাতালের আইসোলেশনে ভর্তি করা হয়। এর আগে এক শিশু একই রকম উপসর্গ নিয়ে আইসোলেশনে ভর্তি হয়। এ নিয়ে বিরামপুরে শিশুসহ দুজন আইসোলেশনে ভর্তি হলেন। উপজেলায় সর্বমোট ২৬ জন হোম কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন।

তিনি বলেন, সোমবার দুপুরে হাকিমপুর উপজেলা থেকে এক শিশুকে হাসপাতালে নিয়ে আসে তার পরিবারের লোকজন। জ্বর-সর্দি-কাশিতে আক্রান্ত হওয়ায় তাকে আইসোলেশনে রাখা হয়। ওই শিশুর সংস্পর্শে গিয়ে অসুস্থ হওয়ায় মেডিকেল অ্যাসিস্ট্যান্টকে আইসোলেশনে রাখা হয়। তাদের নমুনা সংগ্রহ করে আইইডিসিআরে পাঠানো হবে।

জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয় সূত্র জানায়, মঙ্গলবার নতুন করে আরও ৩৬ জনকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। এ নিয়ে দিনাজপুরে ২০৫ জন হোম কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন।

মতামত দিন

avatar