বৃষ্টি-দুঃখের মধ্যে সাকিবকে নিয়ে সুখবর

বৃষ্টি-দুঃখের মধ্যে সাকিবকে নিয়ে সুখবর

খায়রুল ইসলাম ও তাঁর স্ত্রী মনোয়ারা বেগম ব্রিস্টলে ম্যাচটা দেখতে এসেছিলেন কার্ডিফ থেকে। কিন্তু বৃষ্টি যে পণ করেছে, এ দম্পতির মতো যাঁরাই আজ ব্রিস্টলে আসবেন, ফিরতে হবে হতাশমুখে। বৃষ্টি বাগড়া জেনেও বাংলাদেশের হাজার খানেক দর্শক মাঠে এসেছিলেন। প্রার্থনা করেছিলেন ম্যাচটা যেন হয়। প্রকৃতি যেখানে বাংলাদেশের দর্শকদের কথা শুনবে না বলে ঠিক করেছে, ম্যাচটা হয় কী করে!

এই ম্যাচ না হওয়ায় শ্রীলঙ্কার চেয়ে ক্ষতিটা বাংলাদেশের বেশি। টানা দুই ম্যাচ হেরে যাওয়ায় বাংলাদেশের সামনে প্রতিটি ম্যাচই ‘জিততে হবে’ সমীকরণ। সাম্প্রতিক পরিসংখ্যান-রেকর্ড কিংবা শক্তিমত্তা সবকিছু বিবেচনা করে বাংলাদেশের লক্ষ্য ছিল শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ম্যাচটা জেতার। কিন্তু লক্ষ্যটা আর পূরণ হলো। লঙ্কানদের সঙ্গে পয়েন্ট ভাগাভাগি করে সন্তুষ্ট থাকতে হলো মাশরাফিদের। যেখানে লক্ষ্য ২ পয়েন্ট, সেখানে ১ পয়েন্ট পেয়ে কি আর খুশি হতে পারে বাংলাদেশ?

ব্রিস্টলের বৃষ্টিভেজা এই মন খারাপ দিনে একটাই সুখবর—বাঁ ঊরুতে চোট পাওয়া সাকিব আল হাসানকে পাওয়া যাবে ১৭ জুন, টনটনে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে পরের ম্যাচে। তাহলে কি সাকিবকে আজ পাওয়া যেত না? দলের সঙ্গে থাকা নির্বাচক হাবিবুল বাশার বললেন, ‘না, সেটি বলছি না। তবে এ ম্যাচে ওকে পাওয়ার ব্যাপারে সংশয় ছিল। হয়তো ঝুঁকি নেওয়া হতো না। তবে মন্দের ভালো, বৃষ্টির কারণে সাকিবকে নিয়ে আজ আর আমাদের চিন্তা করতে হয়নি। পরের ম্যাচের আগে একটা লম্বা বিরতি আছে, ফিট সাকিবকেই পাওয়া যাবে আশা করি।’

সংবাদ সম্মেলনে স্টিভ রোডসও হাবিবুলের মতো সাকিবকে নিয়ে আশার কথা শোনালেন, ‘ও হালকা একটা চোট পেয়েছিল ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচে। সে চোট নিয়েই অসাধারণ খেলেছে, লড়েছে। আমরা আশাবাদী, সে দ্রুত সেরে উঠবে। খুবই আশাবাদী ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে তাকে আমরা পাব।’ 

বৃষ্টিবাধায় খেলা না হওয়ায় যদি মনটা খুবই খারাপ থাকে আপনার, সান্ত্বনা হতে পারে এতটুকুই, কার্ডিফ থেকে শূন্য হাতে আসতে হয়েছিল ব্রিস্টলে। এখান থেকে অন্তত ১ পয়েন্ট নিয়ে টন্টনে যেতে পারছে!

Comments

comments