পৃথিবী রক্ষায় তরুণ নেতাদের ভূমিকা রাখার আহ্বান পলকের

জলবায়ু পরিবর্তনের ক্ষতিকর প্রভাব থেকে পৃথিবীকে রক্ষায় ইয়ং গ্লোবাল লিডার বা তরুণ নেতাদের ভূমিকা রাখার আহ্বান জানিয়েছেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

জলবায়ু পরিবর্তনের ক্ষতিকর প্রভাব থেকে পৃথিবীকে রক্ষায় ইয়ং গ্লোবাল লিডার বা তরুণ নেতাদের ভূমিকা রাখার আহ্বান জানিয়েছেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

গ্রিনল্যান্ডে চলমান ‘ওয়াইজিএল ইম্প্যাক্ট এক্সপিডেশন’ কর্মসূচির এক মতবিনিময় সভায় এ আহ্বান জানান তিনি।

.

পলক বলেন, জলবায়ু পরিবর্তন বর্তমান বিশ্বের গুরুতর সমস্যা। জলবায়ু পরিবর্তনের কারণগুলোর মধ্যে বৈশ্বিক উষ্ণতা এবং মানুষের দ্বারা দৈনন্দিন জীবনের ক্ষতিকারক রাসায়নিক ব্যবহার প্রধান ও অন্যতম। প্লাস্টিক দূষণ, বন-জঙ্গল উজাড় ও মানুষের অন্যান্য ক্ষতিকারক দ্রব্যাদি ব্যবহার ও কার্যক্রমের কারণে আমাদের পৃথিবী বর্তমানে হুমকির সম্মুখীন এবং প্রাকৃতিক পরিবেশ বিনষ্ট হচ্ছে। এসব কারণে জলবায়ুর দ্রুত পরিবর্তনে সরাসরি প্রভাব হচ্ছে পৃথিবীর গড় তাপমাত্রা বৃদ্ধি। যা আমাদের ভবিষ্যৎ পৃথিবীর জন্য মারাত্মক ক্ষতিকর। আমাদের পৃথিবীকে বাসযোগ্য রাখতে আমরা প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। 
জলবায়ু পরিবর্তনের ধ্বংসাত্মক প্রভাব থেকে পৃথিবীকে রক্ষা করতে নিজ নিজ অবস্থান থেকে জোরালো ভূমিকা রাখতে বিভিন্ন দেশ থেকে এক্সপেডিশনে অংশগ্রহণকারী তরুণ নেতাসহ সংশ্লিষ্ট সবার প্রতি আহ্বান জানান পলক।
 
কর্মসূচির অংশ হিসেবে বোট রাইডের মাধ্যমে জলবায়ু  পরিবর্তনের প্রভাব ও ফলাফল প্রত্যক্ষ করতেই লুলিসট শহরের পার্শ্ববর্তী বিখ্যাত ‘আইস ফিজর্ড ইকী গ্লাসিয়র’ (বরফ প্রাচীর) পরিদর্শন করেছেন প্রতিমন্ত্রী। 

এ সময় এক্সপিডিশনে অংশ নেওয়া বিশ্বের বিভিন্ন দেশের আরো ২০ জন তরুণ নেতা এ বাইক রাইডে অংশ নেন। তারা জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাবে বরফ প্রাচীরের উচ্চতা কমে যাওয়াসহ সম্প্রতি ঘটে যাওয়া পরিবর্তনসমূহ প্রত্যক্ষ করেন।

পিকমি অ্যাপের চালকদের প্রশিক্ষণ কর্মশালা ও ইফতার মাহফিল

পিকমি রাইড শেয়ারিং অ্যাপ তাদের চালকদের নিয়ে প্রশিক্ষণ কর্মশালা ও ইফতার মাহফিল করেছে। 

সম্প্রতি ঢাকার একটি অভিজাত সম্মেলন কেন্দ্রে এ অনুষ্ঠানে প্রায় শতাধিক চালক, বিআরটিএ’র উর্ধ্বতন কর্মকর্তা, জাতীয় জরুরি সেবা ৯৯৯ কর্তৃপক্ষ, ঢাকা ট্রাফিক বিভাগের প্রতিনিধিসহ অংশীজনদের অনেকেই উপস্থিত ছিলেন।

পিকমির প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ওমর আলী রাজের সভাপতিত্বে ও শরিফুল ইসলাম তারেকের সঞ্চালনায় কর্মশালায় রাইড শেয়ারিং অ্যাপ পরিচালনাকারী প্রতিষ্ঠান ও তাদের চালকদের জন্য দিক-নির্দেশনামূলক বক্তব্য দেন বিআরটিএ’র সহকারী পরিচালক ফারুক আহমেদ এবং সহকারী প্রোগ্রামার শাহজান কবীর। 

এছাড়া জাতীয় জরুরি সেবা ৯৯৯ এর ব্যবহার, গুরুত্ব ও অন্যান্য বিভিন্ন দিক নিয়ে বিস্তারিত উপস্থাপনা করেন এই সেবার তত্ত্বাবধায়ক ও পুলিশ সুপার মো. তবারক উল্লাহ। অ্যাপের সঠিক ব্যবহার, উপকারিতা, ব্যবহারকারী-চালকদের মধ্যে মিথষ্ক্রিয়া, নিরাপত্তা সংক্রান্ত অবশ্য পালনীয় বিষয়াবলীসহ অন্যান্য প্রয়োজনীয় বিষয়ে বিস্তারিত উপস্থাপনা দেন পিকমি লিমিটেডের হেড অফ অপারেশন্স আসলাম আলী খান। 

এছাড়া পিকমির পক্ষ থেকে বক্তব্য দেন সিওও অমিত চক্রবর্ত্তী, সিনিয়র ম্যানেজার (বিজনেস অপারেশন্স) শরীফুল ইসলাম তারেক। এ সময় পিকমির পরিচালক মেশকাত হোসেন ও সহকারী বিজনেস অপারেশন্স নিজাম উদ্দিন জাবেদ উপস্থিত ছিলেন।

পিকমির প্রতিষ্ঠাতা ওমর আলী রাজ বলেন, পিকমি জন্মলগ্ন থেকেই বাংলাদেশের রাইড শেয়ারিং খাতে একটি টেকসই ব্যবস্থাপনা ও চর্চার স্বপ্ন দেখে আসছে। বর্তমানে দ্রুত বর্ধনশীল এ শিল্পে অংশীজনদের মধ্যে প্রচুর সচেতনতামূলক কার্যক্রম পরিচালনা করা জরুরি, যেন অদূর ভবিষ্যতে এ খাতে শৃঙ্খলা নিশ্চিত করে দেশের পরিবহন খাতে বাস্তব অর্থেই ডিজিটাল বিপ্লব ঘটানো যায়। 

Comments

comments